অবশেষে এশিয়া কাপে ডোমিঙ্গো না থাকায় বোমা ফাটালেন মোসাদ্দেক

বাংলাদেশ দলে ছোট হয়ে গেছে প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর জায়গাটা। তার ভিত নড়ে গেছে বলেও রয়েছে অনেক আলোচনা-সমালোচনা। যেকোনো সময় পদত্যাগও করতে পারেন এই প্রোটিয়া কোচ। আসন্ন এশিয়া কাপে দলের সঙ্গে

ডমিঙ্গো থাকছেন না এটা অনেকটা ওপেন সিক্রেট হয়ে গেছে এখন।এই যেমন গত শুক্রবার দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ঢাকা এসে শনিবার আনুষ্ঠানিক অনুশীলনের সময় দলের সঙ্গে থাকলেও কাজ বুঝে পাননি ডোমিঙ্গো। কখনও বাউন্ডারি লাইনে বল

কুড়িয়েছেন, কখনও একা একা ব্যাট নিয়ে নাড়াচাড়া করেছেন।ততক্ষণে ডমিঙ্গো বুঝে ফেলেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের টি-২০ তে তার কার্যক্রম নেই। আজ লাল ও সবুজ দলে ভাগ হয়ে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ দল। সেখানেও ছিলেন না

ডমিঙ্গো। সময় কাটান হোটেলে।ম্যাচ শেষে গণমাধমে কথা বলতে আসেন অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক হোসেন। তার কথায় স্পষ্ট, ডমিঙ্গো থাকছেন না এশিয়া কাপে হেড কোচ হিসেবে।এরই মধ্যে আজ বিকেল ৩টার দিকে ঢাকা এসে সোজা মাঠে চলে

আসেন সদ্য নিয়োগ পাওয়া দলের ট্যাকনিকেল কনসালটেন্ট শ্রীধরণ শ্রীরাম। দেখেছেন সাকিব-রিয়াদদের ম্যাচ।ডমিঙ্গো টি-টোয়েন্টি দলের সঙ্গে থাকছেন না এটা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড থেকে এখনও না জানানো হলেও মোসাদ্দেক জানিয়েছেন

কোচকে মিস করার কথা। তাতেই স্পষ্ট ডমিঙ্গো নেই এশিয়া কাপে দলের সঙ্গে।‘আসলে একজনের সঙ্গে আপনি কাজ করলে তাকে মিস করবেন এটাই স্বাভাবিক। সে আমাদের সঙ্গে দুই তিন বছরের মতো ছিল, কিন্তু আমরা গণমাধ্যম থেকে জানতে

পেরেছি সে টেস্ট ও ওনাওডে দলের সঙ্গে থাকবে। তো, টি-টোয়েন্টিতে সেদিক থেকে মিস করব। তাছাড়া তো সে আছে।’কোচিং প্যানেলে পরিবর্তন আনার শুরুটা শ্রীরামকে দিয়ে। আবারও কোনো নতুন মুখ দেখা যাবে প্যানেলে। সামনের

দিনগুলো কেমন হবে নতুনদের সঙ্গে এ নিয়ে মোসাদ্দেক বলেছেন, ‘উনার (ডমিঙ্গো) সঙ্গে আমরা কাজ করেছি অনেক দিন ধরে, এখন নতুন একটা সেট-আপ অবশ্যই আসবে। সেটার সাথে অ্যাডজাস্ট করে মাঠে সেটা করা অবশ্যই একটু কঠিন হবে। কিন্তু আমি মনে করি যে, একজন পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে সবাই ভালোভাবে করবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *