অবশেষে বেরিয়ে এল থলের বিড়াল, এই ১টি মাত্র কারণেই অবসর নিতে বাধ্য হয়েছিলেন অভিজ্ঞ ওপেনার তামিম

তামিম ইকবালের মতো জাতীয় দলের আরেক তারকা ক্রিকেটারও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলতে চাননি। সংবাদ সম্মেলনে এমনটি বলছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

তিনি বলেন, তামিম ইকবাল ছাড়াও আরেক ক্রিকেটার বিশ্বকাপ খেলতে যেতে চায়নি। ভবিষ্যতে এসব মানা হবে না।খেলতে হবে দেশের জন্য। চোটের কারণে বিশ্বকাপের আগে লম্বা সময় জাতীয় দলের

বাইরে থাকেন তামিম ইকবাল। দেশ সেরা এই ওপেনার ফিট হওয়ার পর জাতীয় দলে ফেরা নিয়ে শঙ্কায় পড়ে যান। তার কাছে মনে হয়েছে টিম ম্যানেজমেন্ট তাকে রেখেই বিশ্বকাপ স্কোয়াড ঘোষণা

করবে।বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ পড়ার আশঙ্কায় দল ঘোষণার আগে তামিম নিজেই ঘোষণা দেন বিশ্বকাপ না খেলার। বিশ্বকাপ থেকে নিজেকে সরিয়ে নেওয়ার যুক্তিতে তামিম বলেন, আমার অবর্তমানে

যারা জাতীয় দলে নিজেদের পজিশন গড়ে নিয়েছে আমি দলে ফিরলে তাদের বিশ্বকাপ স্বপ্ন ভেস্তে যেতে পারে। আমি চাই না তাদের সেই স্বপ্ন ভাঙতে। তামিম ইকবালের এমন ঘোষণার পেছনে বেশ

কারণও আছে। জাতীয় দলের বর্তমান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো নাকি সিনিয়রদের দলে রাখার ব্যাপারে আগ্রহী নন। মুশফিক-তামিম-সাকিবদের মতো অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের সাবেকদের কাতারে

রেখে কোচ তুরুণদের নিয়ে লড়াই চালিয়ে যেতে চান।কোচের এমন মনোভাবের কারণেই বিশ্বকাপ না খেলার ঘোষণা দেন দেশের অভিজ্ঞ ক্রিকেটার তামিম ইকবাল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *