অবাক ক্রিকেটবিশ্বঃ শাহিন আফ্রিদিকে ব্যাটিং কোচ হলেন ঋষভ পন্থ

আগামীকাল ২৭ আগস্ট শুরু হতে যাচ্ছে এবারের এশিয়া কাপ। তবে এক দিন পর ২৮ আগস্ট ভারত-পাকিস্তানের ম্যাচ। এশিয়া কাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ ঘিরে ক্রিকেটপ্রেমীদের উত্তেজনা বাড়ছে। দু’দলের ক্রিকেটারদের দেখে অবশ্য সেই

উত্তেজনার আঁচ পাওয়া কঠিন। শাহিন আফ্রিদিকে ব্যাটিং শিখিয়ে দিলেন ঋষভ পন্থ।চোট পেয়ে প্রতিযোগিতা থেকে ছিটকে গিয়েছেন শাহিন। তবু দলের সঙ্গেই রয়েছেন তিনি। অনুশীলনের পর শাহিনকে দেখে বিরাট কোহলী, ঋষভ পন্থরা তাঁর দিকে

এগিয়ে যান। জানতে চান কেমন আছে শাহিনের হাঁটুর চোট।পন্থকে দেখে শাহিন মজা করে বলেন, ‘‘বন্ধু, ভাবছি এ বার আমিও তোমার মতো ব্যাটিং শুরু করব। এক হাতে ছক্কা মারব।’’ ভারতীয় উইকেটরক্ষক-ব্যাটারও পরামর্শ দিলেন তাঁকে।

পন্থ বলেন, ‘‘স্যর, আপনি তো জোরে বোলার। একটু পরিশ্রম করতে হবে। করতেই হবে।’’ এর পরেই পন্থ জানতে চান, ‘‘তোমার হাঁটুর চোট সারতে কত দিন লাগবে?’’ শাহিন বলেন, ‘‘পাঁচ সপ্তাহ।’’শ্রীলঙ্কা সফরে ডান হাঁটুতে চোট পান শাহিন।

এশিয়া কাপে খেলতে পারবেন না। তবু পাকিস্তান দলের সঙ্গেই রয়েছেন দুবাইয়ে। অনুশীলন না করলেও বৃহস্পতিবার দলের সঙ্গে শাহিন এসেছিলেন আইসিসি ক্রিকেট অ্যাকাডেমির মাঠে। ডান পায়ে বিশেষ ধরনের ‘সাপোর্ট’ পরে বসেছিলেন মাঠের

ধারে। তখন অনুশীলন শেষ করে হোটেলে ফিরছিলেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা। শাহিনকে দেখে প্রথমে এগিয়ে যান যুজবেন্দ্র চহাল। ভারতীয় স্পিনারকে দেখে এগিয়ে আসেন শাহিনও। শুভেচ্ছা বিনিময় করেন দুই ক্রিকেটার। সে সময় কিছুটা দূরে অন্য

এক জনের সঙ্গে কথা বলছিলেন কোহলী। কথা শেষ করে তিনিও চলে আসেন শাহিনের কাছে। সৌজন্য বিনিময়ের পর শাহিনের হাঁটুর চোটের কথা জানতে চান। প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক চলে যাওয়ার পর শাহিনকে দেখা যায় পন্থের সঙ্গে।

পরে লোকেশ রাহুলও কথা বলেন সঙ্গে। ভারতীয় ক্রিকেটারদের সঙ্গে শাহিনের ভিডিয়ো নেটমাধ্যমে দিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড।২২ বছরের জোরে বোলার এশিয়া কাপে খেলতে পারবেন বলে মনে করা হয়েছিল। তাই তাঁকে পাকিস্তান দলে

রাখা হয়েছিল। উল্লেখ্য, গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে শাহিনের আগ্রাসী বোলিংয়ের সামনে সমস্যা পড়েছিলেন ভারতীয় ব্যাটাররা। প্রথম ওভারেই তিনি আউট করেছিলেন রোহিত শর্মা এবং রাহুলকে। পরে সাজঘরে ফেরান কোহলীকেও। বিশ্বকাপের যে কোনও ম্যাচে সেটাই ছিল পাকিস্তানের কাছে ভারতের প্রথম হার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *