অবিশ্বাস্যঃ ভারতীয়দের টপকে শীর্ষে বাংলাদেশী মারকুটে ব্যাটসম্যান

জুয়াড়িদের খপ্পরে পড়ে সাকিব আল হাসান নিষিদ্ধ হওয়ার পর থেকে বাংলাদেশে টি-টোয়েন্টি দলের দায়িত্ব চলে আসে দলের অন্যতম নির্ভরযোগ্য ক্রিকেটার মাহমুদুল্লাহর উপরে। তবে সাম্প্রতিক টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে মাহমুদুল্লাহর ফ্রর্ম খারাপ

হওয়ার কারণে সেই অধিনায়কত্ব থেকে বাদ পড়েছেন তিনি। এমনকি গুঞ্জন উঠেছিল দল থেকেও বাদ পড়তে যাচ্ছে এই সাবেক অধিনায়ক।মাহমুদুল্লাহকে অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে পুনরায় সাকিব আল হাসানকে আবার টি-টোয়েন্টি দলের

অধিনায়ক করা হয়। গনমাধ্যমের কানাঘোষায় শোনা যায় সাকিবের কারণেই আবার এশিয়া কাপের স্কোয়াড রাখা হয়েছে মাহমুদুল্লাহকে। তবে আমরা যদি লক্ষ্য করি মাহমুদুল্লাহর পেছনের কিছু ইনিংসের ব্যাপারে তাহলে উঠে আসে

অবিশ্বাস্য কিছু তথ্য।২০১৬ সালের এশিয়া কাপ টি-২০ ফরম্যাটে হয়েছে। আর সে আসরে কমপক্ষে ১০০ রান করেছে এমন ব্যাটসম্যানদের মধ্যে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের স্ট্রাইকরেট সর্বোচ্চ। সেই আসরে এই টাইগার তারকা অবিশ্বাস্য এক

পারফরম্যান্স দেখিয়েছিল।টি-২০ ফরম্যাটে হাওয়া ২০১৬ সালের এশিয়া কাপে ১০০ রান করা কয়েকজন ব্যাটারের স্ট্রাইকরেট তুলে ধরা হলঃ১। রোহিত শর্মাঃ ২০১৬ সালের এশিয়া কাপে ১০০ রান করা ব্যাটাদের মধ্যে রয়েছে রোহিত শর্মা। এই আসরে ভারতীয় এই ব্যাটসম্যানের স্ট্রাইকরেট ছিল ১৩২.৬৯।

২। নাজিরউল্লাহ জাদরানঃ টি-২০ ফর্মেটে হওয়া ২০১৬ সালের এশিয়া কাপে ১০০ রান করা ব্যাটাদের মধ্যে রয়েছে আফগান ক্রিকেটার নাজিরউল্লাহ জাদরান। এই আসরে এই ক্রিকেটারের স্ট্রাইকরেট ছিল ১৪৮.৫৭।

৩। বাবর হায়াতঃ বাবর হায়াত একজন পাকিস্তানি বংশোভূত হংকং ক্রিকেটার। তিনি একজন ব্যাটসম্যান হিসেবে হংকং জাতীয় ক্রিকেট দলে খেলে থাকেন। এশিয়া কাপের মূল পর্বে না হলে বাছাই পর্বে তিনি অবিশ্বাস্য এক কৃতি করে দেখিয়েছেন। টি-২০ ফর্মেটে হওয়া ২০১৬ সালের এশিয়া কাপে ১০০ রান করা ব্যাটাদের মধ্যে রয়েছে হংকং ক্রিকেটার বাবর হায়াত। তার স্ট্রাইকরেট ছিল ১৬০.৩৩।

৪। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদঃ সাম্প্রতিক অফ ফ্রর্মে থাকা মাহমুদউল্লাহ ২০১৬ সালের টি-২০ ফর্মেটে হওয়া এশিয়া কাপে অবিশ্বাস্য এক পারফরম্যান্স দেখিয়েছিল। ওই আসরে ১০০ রান করা ব্যাটসম্যানের মধ্যে সব থেকে বেশি স্ট্রাইকরেট বাংলাদেশী এই ব্যাটসম্যানের। তার স্ট্রাইকরেট ছিল ১৬৫. ৭৫।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *