এবারের বিপিএলে তামিমের ব্যাটে প্রথম ফিফটি

শুরুতে রংপুর রাইডার্স তুলতে পারলো না বড় সংগ্রহ। কোনো ব্যাটারই সেট হতে পারলেন না ক্রিজে। জবাব দিতে নেমে মুনিম শাহরিয়ারের উইকেট হারালো খুলনা টাইগার্স। এরপর দায়িত্ব নিলেন

মাহমুদুল হাসান জয় ও তামিম ইকবাল। খুলনা টাইগার্সকে তারা এনে দিলেন আসরে প্রথম জয়। সোমবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বিপিএলের ম্যাচে রংপুর রাইডার্সকে ৯ উইকেটে

হারিয়েছে খুলনা। আগে ব্যাট করে সব উইকেট হারিয়ে ১২৯ রান করে রংপুর। ওই লক্ষ্য ১০ বল হাতে রেখেই টপকে গেছে খুলনা। এবারের আসরে এটি তাদের প্রথম জয়। অন্যদিকে চার ম্যাচের

দুটিতে হারলো রংপুর। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু থেকে ধুঁকতে থাকে রংপুর। স্কোরবোর্ডে কোনো রান না তুলতেই ওপেনার রনি তালুকদারকে হারায় তারা। এরপর দলীয় ২২ রানে মোহাম্মদ

নাঈম (১৩) বিদায় নিলে কিছুটা প্রতিরোধ গড়েন উইকেটরক্ষক পারভেজ হোসেন ইমন ও মেহেদী হাসান। ২৪ বলে ২৫ রান করে ইমন বিদায় নেওয়ার পর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় রংপুর।

অধিনায়ক শোয়েব মালিকের ব্যাট থেকে আসে কেবল ৯ রান। এরপর একে একে তার পথ অনুসরণ করেন শামিম হোসেন (৪), মোহাম্মদ নওয়াজ (৫)। ৩৪ বলে ৩৮ রান করে মেহেদীও বিদায় নিলে

বিপর্যয়ের মুখে পড়ে দলটি। কিন্তু আর কেউ হাল ধরতে পারেননি। বল হাতে খুলনার ওয়াহাব রিয়াজ ৪ ওভারে মাত্র ১৪ রান খরচে নেন ৪ উইকেট। ৩ ওভারে ১৬ রান খরচে ৩ উইকেট ঝুলিতে

পুরেছেন আমাদ বাট। আর নাহিদুল ইসলাম ৩ ওভারে ২৩ রানে নিয়েছেন ২ উইকেট। জবাব দিতে নেমে শুরুতেই উইকেট নিয়েছিল রংপুর রাইডার্সও। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে মেহেদী হাসানের

বলে মুনিম শাহরিয়ারের ক্যাচ নিয়েছিলেন মোহাম্মদ নওয়াজ। সফট সিগনালে আউট থাকলেও তৃতীয় আম্পায়ারের কাছে গিয়ে বেঁচে যান তিনি। শেষ অবধি মুনিম আউট হন তিন চারে ২১ বলে

২১ রান করে। ম্যাচে এই একটি উইকেটই হারায় খুলনা টাইগার্স। তামিম ইকবাল শুরুটা ধীরস্থির করলেও হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন ৩৫ বলে। শেষ অবধি অপরাজিত থেকে এই ব্যাটার ৪ চার ও ২

ছক্কায় ৪৭ বলে করেন ৬০ রান। আরেক প্রান্তে মাহমুদুল হাসান জয় ৪২ বলে ৩৮ রান করে অপরাজিত ছিলেন। ১০ বল হাতে রেখে জয় তুলে নেয় খুলনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *