এবার খোঁচা মেরে অবশেষে বিপিএল নিয়ে গুরুত্বর প্রশ্ন তুললেন সাকিব

আগেই জানা গিয়েছিল, সোমবার (২২ আগস্ট) আসন্ন এশিয়া কাপ নিয়ে কথা বলবেন টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। তবে এদিন তিনি টুর্নামেন্টটি ছাড়াও কথা বললেন আরও অনেক বিষয়ে। উঠে এসেছে বিপিএল থেকে খেলোয়াড়

প্রাপ্তির বিষয়টিও।দেশের ক্রিকেটে খেলোয়াড় সংকট নতুন নয়। কোনো ক্রিকেটার ইনজুরিতে পড়লে সংকট আরও স্পষ্ট হয়। সাকিব আল হাসানও বিষয়টি নিয়ে এবার হতাশা প্রকাশ করলেন। এশিয়া কাপের বর্তমান স্কোয়াডের বাইরে ভালো

ক্রিকেটার তার চোখে পড়ছে না বলে মন্তব্য করেন টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক।ভারতের আইপিএল কিংবা পাকিস্তানের পিএসএলের কথাই যদি ধরা হয়, প্রতিবছর অনেক ক্রিকেটার ঝলক দেখিয়ে জাতীয় দলে সুযোগ পান। কিন্তু বাংলাদেশের

বিপিএলে তেমনটা দেখা যায় না। এ পর্যন্ত বিপিএলের ৮টি মৌসুম মাঠে গড়িয়েছে। তবে সে তুলনায় ক্রিকেটার উঠে আসার হার হতাশাজনক।সাকিব বলেন, আমি জানি যে এটলিস্ট বিপিএল থেকে প্রতি বছর দুজন করে প্লেয়ার আসবে, আমার দেখা

মতে সাইফউদ্দিন ও শেখ মেহেদী ছাড়া তেমন কাউকে দেখিনি বিপিএল থেকে এসেছে। এটা একটা হতাশার জায়গা। আরও বলেন, এ বছর থেকে যদি আসে তাহলে খুবই ভালো। প্রতি বছর দুইটা করে আসলে তো অনেক, দুই বছরে চারজন প্লেয়ার

হবে।এদিকে, এবারের এশিয়া কাপে তাদের ওপর মানুষের প্রত্যাশা খুব বেশি নেই বলে মনে করেন সাকিব। বলেন, এখন তাদের ওপর মানুষের প্রত্যাশা খুব বেশি নেই। আমি বিশ্বাস করি যে, মানুষ এখন আমাদের থেকে বেশি আশা করে না।

এ পরিস্থিতিতে বিশেষ করে টি-টোয়েন্টিতে, যেহেতু আমাদের রেকর্ডটাই গত ১৬-১৭ বছর ধরে খুব ভালো কিছু করতে পারিনি। মাঝে মাঝে ভালো করলেও, ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারিনি আমরা।সাকিব আরও বলেন, এমন না যে আমরা কখনও করে

দেখাইনি। আমি যদি এক-দুইবার, তিনবার করে দেখাতে পারি, তার মানে আমাদের ভেতরে সেই সামর্থ্যটা আছে। আমার কথা হলো, সেটা কতটা ধারাবাহিকভাবে করতে পারি। যেটা আমরা গত কিছুদিন ধরে করতে পারছি না।এদিকে আমাদের দলে ভারত কিংবা অস্ট্রেলিয়ার মতো এতো বড় বড় খেলোয়াড় নেই। তবে যারা আছে তাদের যদি ভালোভাবে ব্যবহার করতে পারি তাহলে ভালো ফল পাওয়া সম্ভব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *