এশিয়া কাপে ব্যর্থ হলেই বিশ্বকাপে কপাল পুড়বে কোহলির

আর মাত্র দুই মাস, তারপর অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে আরম্ভ হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। সেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক বিরাট কোহলির দলে নির্বাচন নিয়ে নাকি এখনও সন্দেহ রয়েছে। আসন্ন এশিয়া কাপের

ম্যাচগুলোতে তিনি কেমন পারফর্ম করবেন তার উপর বিশ্বকাপে তার নির্বাচন নির্ভর করবে।ইতিমধ্যেই ভারতীয় দলে এমন অনেক তারকা চলে এসেছেন যারা শেষ কয়েকমাসে বিরাট কোহলির সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সের চেয়ে অনেক বেশি ভালো

পারফরম্যান্স করেছেন। গত আইপিএলে তিনি একেবারেই ছন্দে ছিলেন না। তিনি ২০২২ সালের আইপিএলে মাত্র ২২.৭৩ গড়ে এবং ১১৬-র কাছাকাছি স্ট্রাইক রেটে মাত্র ৩৪১ রান করতে পেরেছিলেন। তার পরে তিনি ইংল্যান্ডে গিয়ে তিনটি

ফরম্যাটে ৬ ম্যাচ এবং ৭ ইনিংস খেলে ব্যাট হাতে মাত্র ৭৬ রান করতে পেরেছিলেন।তারপর দীর্ঘদিন বিশ্রাম নিয়ে তারপর ভারতীয় দলে ফিরছেন তিনি। এই নিয়ে সম্প্রতি একজন বিসিসিআইয়ের নির্বাচক মন্তব্য করেছেন। রোহিত শর্মা বলে

দিয়েছেন যে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দল প্রায় তৈরি। কিন্তু ওই নির্বাচক বলেছেন, “রোহিত একজন টিম ম্যানেজমেন্টের সদস্য হিসেবে ওই কথা বলেছে কিন্তুআমাদের নির্বাচকদের মধ্যে কয়েকটা জায়গা নিয়ে এখনো তর্ক রয়েছে। হর্ষল প্যাটেল

এবং যশপ্রীত বুমরার ছোট নিয়েও আমাদের অপেক্ষা করতে হবে।বিরাটের ব্যাপারে আমরা বলতে পারি যে আমরা এশিয়া কাপে ওর পারফরম্যানসের দিকে নজর রাখছি।” বিরাট কোহলি ইংল্যান্ড সফরের পর টানা বিশ্রামে রয়েছেন। ওয়েস্ট

ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ওডিআই বা টি-টোয়েন্টি কোন সিরিজের অংশ হননি তিনি। আর দুমাস পরে সরাসরি পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচে তিনি মাঠে নামতে চলে আসেন। এশিয়া কাপ টুর্ণামেন্টে ভারতই সবচেয়ে ফেভারিট হিসেবে অংশগ্রহণ করছে। বিরাট কোহলি অফ ফরমেট থাকলেও

ভারতের এশিয়া কাপ জেতা খুব কঠিন হবে বলে কেউই মনে করছেন না। কিন্তু বিরাট কোহলি নিজে চটি পারফরম্যান্স না করতে পারেন তাহলে তার বিশ্বকাপের দলের অংশ হয়ে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে উড়ে যাওয়া নিয়ে একটা প্রশ্ন ছিল থেকেই যাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *