এশিয়া কাপের পর্দা উঠছে আজ, শুরু হবে ছয় দলের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই। দেখেনিন পরিসংখ্যান

প্রতিযোগিতাটি শ্রীলঙ্কায় হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু লঙ্কানদের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক সংকটের কারণে এশিয়া কাপ থেকে তাদের প্রত্যাহার করতে হয়।কাগজে কলমে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা। তবে এবারের এশিয়ান কাপ শুরু হচ্ছে সংযুক্ত আরব

আমিরাতে। আজ (শনিবার) পর্দা উঠল এশিয়ান ক্রিকেটের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ আসরের।ছয়টি দলের এই প্রতিযোগিতায় দুটি গ্রুপ রয়েছে। ‘এ’ গ্রুপে রয়েছে ভারত, পাকিস্তান এবং কোয়ালিফায়ার হংকং। ‘বি’ গ্রুপে রয়েছে বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা ও

আফগানিস্তান। দুই গ্রুপের শীর্ষ দুই দল সুপার ফোরে লড়বে। সেখান থেকে শীর্ষ দুই দল ফাইনালে উঠবে।টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচে আজ মুখোমুখি শ্রীলঙ্কা আর আফগানিস্তান। দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে

বাংলাদেশ সময় রাত আটটায়।এমনিতেই টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে আগাম ভবিষ্যৎবাণী করা কঠিন। শক্তিমত্তা আর পরিসংখ্যান বিবেচনায় আফগানিস্তানের বিপক্ষে লঙ্কানদের হয়তো কিছুটা ফেবারিট ভাবা যেতে পারে।তবে ২০২০ সালের পর থেকে

আফগানিস্তানের টি-টোয়েন্টি রেকর্ড কিন্তু যথেষ্ট ভালো। তারা একটি টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতেছে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জিতেছে দুটি, একটি ড্র করেছে বাংলাদেশের সঙ্গে।সেদিক থেকে দেখলে ২০২০ সালের পর শ্রীলঙ্কা টি-

টোয়েন্টি সিরিজ জিতেছে মাত্র একটি। সেটা ভারতের বিপক্ষে। তবে পরিসংখ্যানে হয়তো একটি কথা লেখা নেই, ওই সিরিজে ভারত একদম দ্বিতীয় সারির দল নিয়ে খেলেছে।ভারতের একটি দল টেস্ট সফরে ছিল ইংল্যান্ডে। এর মধ্যে ৭ জন ক্রিকেটার

করোনা আক্রান্ত হওয়ায় লঙ্কানদের বিপক্ষে দ্বিতীয় সারির দলটি হয়ে গিয়েছিল তৃতীয় সারির।আফগানিস্তান তাদের সর্বশেষ পাঁচ টি-টোয়েন্টির মধ্যে জিতেছে ২টি, শ্রীলঙ্কা মাত্র একটি। সব দিক থেকেই মনে হচ্ছে, আজকের লড়াইটা মোটেই

একতরফা হবে না। বরং যে কোনো দলই জিততে পারে।আর এই গ্রুপটাকে ধরা হচ্ছে গ্রুপ অব ডেথ। এখান থেকে দুটি দল সুপার ফোরে উঠবে। শ্রীলঙ্কা, আফগানিস্তানের সঙ্গে আছে আবার আফগানিস্তান। যার অর্থ, যে দল আফগানদের সঙ্গে হেরে যাবে তাদের বাদ পড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা জোরালো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *