ওয়ানডে বিশ্বকাপের এই ব্যাপারে রবিচন্দ্রন অশ্বিনের সাথে এক মত রোহিতও

শিশিরের প্রভাবের কথা ভেবে ওয়ানডে বিশ্বকাপের ম্যাচ দ্রুত শুরুর যে পরামর্শ দিয়েছেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন, তা যৌক্তিক মনে হয়েছে রোহিত শর্মার। এতে লড়াইয়ে সমতা আসবে বলে মনে করেন

ভারত অধিনায়ক। ভারতে আগামী অক্টোবর-নভেম্বরে হবে ওয়ানডে বিশ্বকাপের ত্রয়োদশ আসর। ওই সময়টায় সন্ধ্যার পর শিশির একটু বেশি দেখা যায়। আর ভারতে দিবা-রাত্রির ম্যাচ শুরু হয়

সাধারণত বেলা দেড়টায়। যা শেষ হতে হতে রাত ৯টা। শিশিরের প্রভাবে পরে ব্যাটিং করা দলগুলো সবসময়ই পায় বাড়তি সুবিধা। কারণ ভেজা বলে বোলিং করতে সমস্যা হয় বোলারদের। সঙ্গে

মাঠ কিছুটা পিচ্ছিলও হয়ে যায় শিশিরের কারণে, এতে ফিল্ডিং করতেও অসুবিধা হয়। বাড়তি এই সুবিধার কারণে টস তখন হয়ে ওঠে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। বিশ্বকাপের ম্যাচে এমন কিছুর প্রভাব না

থাকাকেই শ্রেয় মনে করেন রোহিত। তাই ম্যাচগুলো দিনে দিনে শেষ করার পক্ষে তিনি। ঘরের মাঠে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে বুধবার শুরু হবে ভারতের ওয়ানডে সিরিজ। আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে

বিশ্বকাপের ম্যাচ শুরুর সময় নিয়ে রোহিতের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি তুলে ধরেন তার ভাবনা। “আমি বলতে চাচ্ছি, এটা (আগে ম্যাচ শুরু করা) ভালো চিন্তা। কারণ, এটা বিশ্বকাপ, তাই না?

টস নিয়ে খুব বেশি আপোস করতে চাইবে না কেউ এবং সবাই চাইবে যেন এই বিষয়টাই (শিশিরের সুবিধা) ম্যাচে প্রভাব না রাখে। ম্যাচ আগে শুরু করার ভাবনাটি ভালো লেগেছে। কিন্তু আমি জানি না,

এটা সম্ভব কিনা।” “ব্রডকাস্টাররা নির্ধারণ করবে ম্যাচ কখন শুরু করা উচিত। কিন্তু আদর্শভাবে ম্যাচে ওই ধরনের সুবিধা থাকুক, কেউ চাইবে না। সবাই ভালো ক্রিকেট ম্যাচ দেখতে চাইবে, এক দল

লাইটের নিচে শিশিরের সুবিধা নিয়ে ব্যাটিং করবে, এমনটা চাইবে না। তবে ওই বিষয়গুলো আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই। আমার ম্যাচ আগে শুরুর আইডিয়াটি পছন্দ হয়েছে।” গত রোববার নিজের ইউটিউব

চ্যানেলে অশ্বিন তুলে ধরেন শিশিরের প্রভাবের কথা। দিবা-রাত্রির ম্যাচগুলো সাড়ে ১১টা থেকে শুরুর পরামর্শ দেন ভারতের অভিজ্ঞ এই স্পিনার। তার মতে, শিশিরের কারণে দলগুলোর মধ্যে মানের

পার্থক্যটা বোঝা যায় না। “আমার পরামর্শ কিংবা মতামত হলো, বিশ্বকাপে আমরা কোন ভেন্যুতে খেলছি এবং কোন সময়ে খেলছি তা দেখতে হবে। বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো বেলা সাড়ে ১১টায় কেন শুরু করা উচিত নয়?”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *