ক্যারিয়ার সেরা রেকর্ড গড়া ইনিংস আনুশকা ও ভামিকাকে উৎসর্গ করলেন কোহলি

সেঞ্চুরি করা ডাল-ভাত বানিয়ে ফেলেছিলেন বিরাট কোহলি। রিকি পন্টিংয়ের ৭১ সেঞ্চুরির রেকর্ড ভাঙা সময়ের ব্যাপার হয়ে উঠেছিল। শচীন টেন্ডুলকারের শততম সেঞ্চুরিও ঝুঁকিতে ফেলে দিয়েছিলেন।

ওই কোহলি ২০১৯ সালের ২২ নভেম্বরের পরে সেঞ্চুরির স্বাদ ভুলে গিয়েছিলেন। সময়ের হিসাবে দুই বছর ৯ মাস ১৬ দিন তিনি ব্যাট উচিয়ে উদযাপন করতে পারেননি। দিনের হিসেবে এক হাজার ২০ দিন। এই খারাপ সময়ে অনেকের কথাই শুনতে হয়েছে কোহলিকে৷ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে হয়েছেন ট্রলের স্বীকারও। একমাত্র নিজের পরিবারকেই পাশে পেয়েছেন এই খারাপ সময়ে।

অবশেষে অপেক্ষা ফুরাল, আফগানিস্তানের বিপক্ষে বৃহস্পতিবার এশিয়া কাপের সুপার লিগে বিরাটের ঘড়ির ব্যাড প্যাচ থামল। এশিয়া কাপ থেকে বিদায় হয়ে যাওয়ার পর কোহলি খেলেছেন ৬১ বলে ১২২ রানের হার না মানা দুর্দান্ত ইনিংস খেলেছেন। যা ভারতের হয়ে টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের ইনিংস।

এমন ইনিংসের পরই ইনিংস বিরতির ফাঁকে প্রেজেন্টেশনে নিজের রেকর্ড গড়া এই ইনিংস স্ত্রী আনুশকা শর্মা ও কন্যা ভামিকাকে উৎসর্গ করার কথা বলেন কোহলি। তিনি বলেন, ‘আজ আমাকে এখানে দেখতে পাচ্ছেন একজন মানুষের জন্য, সে আনুশকা। এই শতক তার জন্য এবং আমাদের মেয়ে ভামিকার জন্য। আপনার দৃষ্টিভঙ্গিতে কথা বলবে এমন একটা মানুশ পাশে থাকলে সব সহজ হয়ে যায়। আনুশকা সেই মানুষটা।’

সেঞ্চুরির অনুভুতি জানিয়ে কোহলি বলেন, ‘গত আড়াই বছর আমাকে অনেক কিছু শিখিয়েছে। এক মাসের মধ্যে বয়স হবে ৩৪। দল সবসময় আমাকে সহায়তা করেছে। যদিও জানতাম বাইরে অনেক কথাবার্তাই হচ্ছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *