চমক দিয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওপেনিংয়ে সাব্বির-মিরাজ!

এশিয়া কাপের প্রথম ম্যাচে নাইম শেখ ও এনামুল হক বিজয়ের ওপেনিং জুটি কার্যকর হয়নি। আফগানিস্তানের বোলারদের বিপরীতে নড়বড়ে ব্যাটিংয়ের প্রদর্শনী দেখিয়ে তারা সাজঘরে ফিরেছিলেন দ্রুত। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাঁচা-মরার ম্যাচে তাদেরকে বাংলাদেশের ইনিংসের গোড়াপত্তন করতে হয়তো দেখা যাবে না। সাব্বির রহমান ও মেহেদী হাসান মিরাজকে ওপেনিংয়ে পাঠানোর ভাবনায় রয়েছে টিম ম্যানেজমেন্ট।

এতটুকু পড়ে সম্ভবত চমকে উঠেছেন পাঠক। চমক লাগার মতো তথ্য বটে। তবে এই পথেই হাঁটতে চাচ্ছে বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্ট। গত মঙ্গলবার শারজাহতে আফগানদের কাছে ৭ উইকেটের বিশাল হারে নাঈম ও এনামুল যারপরনাই হতাশ করেন। ব্যাট হাতে আত্মবিশ্বাসের ছাপ খুঁজে পাওয়া যায়নি তাদের মাঝে। নাঈম বোল্ড আউট হন ৮ বলে ৬ রানে। এলবিডব্লিউ হওয়া এনামুল ৫ রান করতে খেলেন ১৪ বল।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচে তাই নাঈম ও এনামুলের সুযোগ পাওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, ওপেনিংয়ে সাব্বির ও মিরাজকে নামানোর চিন্তা চলছে। আফগানদের বিপক্ষে দুজনের কেউই ছিলেন না টাইগারদের একাদশে।

সাব্বির ও মিরাজ বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দলে নিয়মিত মুখ নন। ডানহাতি ব্যাটার সাব্বির ২০১৯ সালে শেষবার এই সংস্করণে খেলেছিলেন চট্টগ্রামে আফগানিস্তানের বিপক্ষে। স্পিন অলরাউন্ডার মিরাজের শেষ আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ ছিল আরও আগে, ২০১৮ সালে মিরপুরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে।

লঙ্কানদের মোকাবিলা করার আগে সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশের প্রতিনিধি ছিলেন টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন। তিনি একাদশে পরীক্ষা-নিরীক্ষার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেননি, ‘হতেও পারে কাল (বৃহস্পতিবার) পরীক্ষা-নিরীক্ষা। বলা যায় না।’

বৃহস্পতিবার রাতে দুবাইতে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে সুপার ফোরের টিকিট নিশ্চিতের অভিযানে নামার আগে মাত্র এক দিনের বিরতি পেয়েছে বাংলাদেশ দল। সেকারণে ছিল ঐচ্ছিক অনুশীলনের ব্যবস্থা। আফগানিস্তানের বিপক্ষে একাদশে থাকা ক্রিকেটাররা অনুশীলনে যাননি। তবে মিরাজ ও সাব্বিরের পাশাপাশি নেটে ঘাম ঝরিয়েছেন পারভেজ হোসেন ইমন, ইবাদত হোসেন ও নাসুম আহমেদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *