বুধবার , ২৬ জানুয়ারি ২০২২ | ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. আন্তজাতিক সংবাদ
  3. ক্রিকেট
  4. খেলাধুলা
  5. ফুটবল
  6. শিক্ষা
  7. স্বাস্থ্য এবং পরামর্শ

দেখে নিন বস্তি থেকে উঠে আসা একজন মানবিক ক্রিকেটারের গল্প!

প্রতিবেদক
Sanarbangla Publisher
জানুয়ারি ২৬, ২০২২ ৩:৩৭ অপরাহ্ণ

ঢাকা: বাংলাদেশ ক্রিকেটের অনেক ‘প্রথমের’ সাক্ষী ও অর্জনকারী মোহাম্মদ রফিক। তাকে চেনেন না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দুষ্কর।এই সাবেক ক্রিকেটার ব্যাট ও বল হাতে উভয় বিভাগেই একজন দুর্দান্ত ক্রিকেটার ছিলেন। রফিকের সময়টা বাংলাদেশ দলের অবস্থান ভালো পর্যায়ে ছিল না। বাংলাদেশ ম্যাচও খুব বেশি খেলতো না; সেই পর্যায়ে থেকেই দুর্দান্ত একটি ক্যারিয়ার গড়েছিলেন তিনি।

সময় বহমান। বহমান প্রতিক্ষণ। দিনের পর দিন শেষে, মাস ফুরিয়ে বছর আসে। কেটে যায় কত কাল। তারই সাথে পথ চলতে দারিদ্র্যতাকে বন্ধু করে জিঞ্জিরার রফিক, একসময় রফিক হয়ে উঠলেন সমগ্র বাংলার। ব্যাটে-বলে সমতালে তার হাতেই লেখা হয় ক্রিকেটে বাংলাদেশের জয়ের ইতিহাস। স্বাধীন বাংলার প্রথম জয়ের মহানায়ক!

বাংলাদেশের ক্রিকেটের এক সময়ের বড় তারকা তিনি, বাংলাদেশের সেরাদের অন্যতম একজন। তাকে মূল্যায়ন করতে পরিসংখ্যান ব্যর্থ হবে। তাকে বুঝতে ফিরতে হবে পেছনে, তার অতীতে, তার জীবন গল্পে। তার জীবন সংগ্রাম আর উত্থান পর্ব আপনাকে কাঁপিয়ে দেবে, শিহরিত করবে নিঃসন্দেহে। গল্পটা আজ তাই একজন মহানুভব ও মানবিক ক্রিকেটারের।

বুড়িগঙ্গার তীরঘেষে গড়ে উঠা জিঞ্জিরার বস্তিতে সারা দিন ক্রিকেট খেলে আর মাছ ধরে সময় কাটানো ছোটবেলার রফিক খুব কাছ থেকে দেখেছেন দারিদ্রতা। নদী পাড়ে গরু চরাতে এসে নৌকার মাঝিকে বলে কয়ে ঢাকায় পালিয়ে আসতেন রোজ বিকেলে। কারণ? ক্রিকেট!

ক্রিকেটের নতুন দর্শন ‘পিঞ্চ হিটিং’য়েও বাংলার সার্থক রূপকারও ছিলেন রফিক। দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশের বোলিংয়ের প্রধান অস্ত্র ছিলেন এই বাঁহাতি। সেই সঙ্গে ব্যাটিংয়েও তিনি হরহামেশাই মেটাতেন সময়ের দাবি। বিশেষ করে বিষাক্ত নীল স্পিন বিভ্রমে যেভাবে খাবি খাওয়াতেন বোলারদের, তাতে হরভজন সিং বা রঙ্গনা হেরাথও ছুটে আসতেন তার কাছে; একটুখানি পরামর্শ নিতে।

সাকিবের বাঁ হাতের ভেল্কি দেখতে আমরা চাতক পাখির মতো চেয়ে থাকি। স্পিন বিভ্রমের কথা হলে রাজ্জাককেও চোখে ভেসে থাকে। কিন্তু বাংলাদেশের ক্রিকেটের স্পিন পথিকৃৎ মোহাম্মদ রফিকই। অনেক বা অগণিত বোলার হয়তো ওয়ানডে বা টেস্টে ১০০ উইকেট পাবে। কিন্তু ইতিহাস দেখতে গেলে প্রথম শততম উইকেট শিকারি আমাদের রফিকই।

প্রথম বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসেবে তিনটি বিশ্বকাপ খেলার রেকর্ড আছে রফিকের। (১৯৯৯, ২০০৩, ২০০৭)। তাছাড়া প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে টেস্ট ও ওয়ানডেতে ১০০ উইকেট আর ১,০০০ রান সংগ্রহকারী মোহাম্মদ রফিক। ২০০৫ সালে বর্ষ সেরা ক্রিকেটার ও ২০০৬ সালে বর্ষসেরা বোলার নির্বাচিত হন রফিক। তখনকার সময়ে ওয়ানডে ও টেস্ট বোলিং র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ অবস্থান ছিল ১৯। যা ছিল মোহাম্মদ রফিকের।

তার জীবনে ক্রিকেটের গল্পের বাহিরেও গল্প আছে। যেই গল্পগুলো হৃদয় ছুঁয়ে যেতে বাধ্য…

▪️ঐতিহাসিক মুলতান টেস্টে উমর গুলকে নিশ্চিত মানকাট আউট না করে মহানুভবতার এক অম্লান মূর্তি স্থাপন করেছিলেন তিনি। বাংলাদেশ ম্যাচটি শোচনীয়ভাবে হেরে যায়। পরে রফিককে এ বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি তার সরল ভাষায় উত্তর দিয়েছিলেন, ‘আউটটা করলে আমরা জিতে যেতাম ঠিক; কিন্তু, মানুষ আমাদের ছোটলোক ভাবত। আমরা ছোট লোক নয়।’

উচ্চ ব্যক্তিত্বের এ মানুষটি একটি বস্তি থেকে ওঠে এসেছে, যে জীবনে কখনো পড়ালেখা করেননি! ভাবা যায়!

▪️১৯৯৭ সালে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জয়ের পর অংশ নেয়া সকল খেলোয়াড়কে সরকারি অনুদানে জমি আর গাড়ি দেয়া হয়েছিল। মোহাম্মাদ রফিক সে টুর্নামেন্টের ১৯ উইকেট নিয়েছিলেন আর ফাইনালে করেছিলেন ম্যাচজয়ী ২৫ রান। তার সে জমি দান করেছিলেন এলাকার বস্তিতে স্কুলের জন্য; আর গাড়ি বিক্রির টাকায় উঠেছিল স্কুলের বিল্ডিং। বলেছিলেন, ‘আমরা তো লেখাপড়া করতে পারি নাই। পোলাপাইনগুলা যেন পারে।’

▪️আইসিসি ট্রফি জয়ের পরনপ্রধানমন্ত্রীর কাছে যখন অন্য ক্রিকেটাররা গাড়ি-বাড়ি চাইতে ব্যস্ত, তখন মোহাম্মদ রফিকে চাওয়া ‘নিজের জন্মস্থান বুড়িগঙ্গার কাছে বাবু বাজারে একটা ব্রিজ’, যাতে মানুষের যাতায়াতে সুবিধা হয়। তার অনুরোধে ওই ব্রিজটি হয়।

▪️নিজের পৈত্রিক জমি তিনি দান করে দিয়েছিলেন চক্ষু হাসপাতালে তৈরীতে। আর এখন চেষ্টা করে চলেছেন বাকি যা আছে তাই নিয়ে একটা ক্রিকেট একাডেমি গড়তে।

▪️২০২০ সালে করোনা ভাইরাসের সময় রফিক তার ঐতিহাসিক ১১১ রানের ইনিংসের সেই ব্যাটটি (দেশের বাইরে প্রথম সেঞ্চুরি) নিলামে তুলেছিলেন এবং ২০২০ সালের এপ্রিল মাসে বাংলাদেশের সাবেক ক্রিকেটারদের মধ্যে রফিক প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে স্মারক নিলামে তোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।

আজ এত গল্প করার কারণ লিজেন্ডস লিগ ক্রিকেটে এশিয়া লায়ন্সের হয়ে মোহাম্মদ রফিকের অসাধারণ নৈপুন্য। ৪ ওভার বোলিং করে তুলে নিয়েছেন ওয়াসিম জাফর আর স্টুয়ার্ড বিনির উইকেট। তার চঞ্চলতা দেখে কে বলবে মোহাম্মদ রফিক বুড়িয়েছেন, ফুরিয়েছেন। তিনি তো সেই পুরনো রফিকের মতোই লড়েছেন। আগামী ম্যাচগুলোতেও তার ছাপ থাকুক, তার বোলিংয়ে প্রতিপক্ষ কাঁপুক।

সর্বশেষ - ক্রিকেট

আপনার জন্য নির্বাচিত

অল্পের জন্য শীর্ষে উঠা হলো না নেইমারের

বাংলাদেশের দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের চূড়ান্ত সময়সূচি ঘোষণা !

আসন্ন বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে নিয়ে ভবিষ্যবাণী ! যা অক্ষরে অক্ষরে মিলে যাচ্ছে,

চট্টগ্রাম টেস্ট ড্রয়ের পর বাংলাদেশকে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করে বসলেন শ্রীলংকার অধিনায়ক

নাঈম, শরিফুলকে বাদ দিয়ে তাদের পরিবর্তে এই দুই জনকে নিয়ে ২য় টেস্টের জন্য চূড়ান্ত দল ঘোষণা করল বিসিবি

টি-২০ বিশ্বকাপ ২০২২-এ কপাল পড়তে যাচ্ছে টিম ইন্ডিয়া !

ম্যাচ জিততে শেষমেষ মুস্তাফিজকে একাদশের বাইরে রেখে ১ পরিবর্তন নিয়ে কলকাতার বিপক্ষে শক্তিশালী একাদশ ঘোষণা করলো দিল্লি!

কেকেআরের হারের কারণ খুজে বের করে অবশেষে সিদ্ধান্ত বদল করলেন ম্যাকালাম!

হার্দিক বিহীন গুজরাটের কাছেই পাত্তা পেল না চেন্নাই, রশিদ-মিলারের ঝড়ে উড়ে গেলো ধোনিরা

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে লাসিথ মালিঙ্গার বিধ্বংসী রেকর্ড ভাঙলো এই ওয়ানডে সিরিজ জয়ের নায়ক !