বিশ্বকাপ মিশনে অস্ট্রেলিয়ার মতই শ্রীলঙ্কাকেও নিজের খাদ্যে পরিণত করলো বাংলাদেশ

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার মত শক্তিশালী দলকে হারিয়ে হইচই ফেলে দিয়েছিল বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ নারী ক্রিকেট দল। সেই জয় যে অঘটন ছিল না, সেটি বাংলাদেশের মেয়েরা

দেখিয়ে দিলো পরের ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকেও হারিয়ে। বেনোনিতে ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচে আজ (সোমবার) শ্রীলঙ্কাকে ৯ রানে হারিয়েছে অনূর্ধ্ব-১৯ দলের মেয়েরা। টানা দুই জয়ে বিশ্বকাপের সুপার সিক্স প্রায়

নিশ্চিত হয়ে গেছে তাদের। ম্যাচে টসভাগ্য সহায় ছিল না বাংলাদেশের মেয়েদের। প্রথমে তাদের ব্যাটিংয়ে পাঠায় শ্রীলঙ্কা। তবে টস হারলেও ব্যাটিংটা দারুণ করেছে বাংলাদেশের মেয়েরা। ২

উইকেটেই গড়ে ১৬৫ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ। মিষ্টি সাহাকে নিয়ে উদ্বোধনী জুটিতে ৭৫ রান তোলেন আফিয়া প্রত্যাশা। ৪৩ বলে ৫ চার আর ৩ ছক্কায় তিনি দুর্দান্ত এক হাফসেঞ্চুরি তুলে ১২তম

ওভারে আউট হন ৫৩ করে।মিস্টি অবশ্য তার মতো খেলতে পারেননি। ২৪ বলে ১৪ রানের ধীরগতির এক ইনিংস খেলে ওই ওভারেই সাজঘরে ফেরেন। কিছুটা চাপে পড়ে দল। সেখানে দাঁড়িয়ে

দিলারা আক্তার আর স্বর্ণা আক্তারের ঝোড়ো ব্যাটিং। উইকেটরক্ষক দিলারা আক্তার ২৭ বলে করেন অপরাজিত ৩৬ রান। হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন স্বর্ণা। ২৮ বলে তার ৫০ রানের মারকুটে ইনিংসে ছিল

৩ চার আর ২ ছক্কার মার। রান তাড়ায় নামা শ্রীলঙ্কার ২৪ রানেই ২ উইকেট তুলে নিয়েছিল বাংলাদেশ। সেই চাপ সামাল দেন অধিনায়ক বিশ্বি গুনারত্নে আর দেওমি ভিহাঙ্গা। একটা সময় মনে হচ্ছিল,

তারা হয়তো বাংলাদেশকে হারিয়েই দেবেন। ১৭তম ওভারে দেওমিকে (৪৪ বলে ৫৫) এলবিডব্লিউ করেন মারুফা আক্তার। একটা প্রান্ত ধরে ছিলেন অধিনায়ক বিশ্বি। তবে শেষরক্ষা করতে পারেননি।

৫৪ বলে ৮ চার আর ১ ছক্কায় ৬০ রানে অপরাজিত থাকেন লঙ্কান অধিনায়ক। ৪ উইকেটে ১৫৫ রানে থামে লঙ্কানদের ইনিংস। মারুফা আক্তার ৪ ওভারে ১৯ রানে নেন ২টি উইকেট। দিশা বিশ্বাস এক

উইকেট পেলেও ৪ ওভারে খরচ করেন ৪৪ রান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *