বিসিবির সাথে কথাবার্তা চূড়ান্ত করতে বাংলাদেশে আসছেন হাথুরুসিংহে

বিসিবি থেকে সর্বোচ্চ সতর্কতা ও গোপনীয়তা অবলম্বন করা হচ্ছে। কেউ একটি কথাও বলছেন না। তাই বলে হেড কোচ নিয়োগ মিশন থেমে নেই বিসিবির। সম্ভাব্য হেড কোচের সঙ্গে

যোগাযোগ ও কথাবার্তা চলছে। একদম ভেতরের খবর, কোচ মনোনয়ন একরকম নিশ্চিত। চন্ডিকা হাথুরুসিংহেকেই আবার কোচ হিসেবে পেতে চাচ্ছে বিসিবি। এ লঙ্কানের আবার কোচ হয়ে

আসা একরকম চূড়ান্ত বলেই জানা গেছে। এক অতি দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে, বিসিবির সঙ্গে কথাবার্তা চূড়ান্ত করতে এবং আনুষ্ঠানিক চুক্তি সাক্ষর করতে খুব শিগগিরই ঢাকা আসছেন

হাথুরুসিংহে। সেটা কবে? খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বিপিএলের ঢাকাপর্বে ফেরার পরই রাজধানীতে পা রাখবেন হাথুরুসিংহে। এবং তখনই দু’পক্ষের মধ্যে চুক্তি সাক্ষরিত হবে। হাথুরু কর্তৃত্বপরায়ন।

ক্রিকেটারদের ওপর তার নিয়ন্ত্রণ আছে। ছড়ি ঘোরাতে পছন্দ করেন, পারেনও। কাউকে ছাড় দেন না। আগেরবার দায়িত্ব পালনকালেও হাথুরু দেখিয়ে দিয়েছেন, ক্রিকেটারদের নিয়ন্ত্রণ করার

কাজটি তিনি খুব ভালো পারেন। তাই হাথুরুকে পছন্দ বিসিবির। এবার তার কেমন বেতন হবে? আগেও হাথুরু বেশি বেতনে কাজ করেছেন। এবার হাথুরুও অবস্থা বুঝে নিজের চাহিদা বাড়িয়ে

দিয়েছেন আরও। জানা গেছে, আগের চেয়ে ২৫-৩০ শতাংশ বেশি বেতন, পারিশ্রমিক ও ভাতা দাবি করেছেন এই লঙ্কান। বিসিবিও নাকি তা মেনে নিয়েছে। তাই এখন আর তার কোচ

হিসেবে যোগদানে কোনো বাধা নেই। তারপরও একটা অন্তরায় সৃষ্টি হয়েছে। বিসিবি টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের জন্য ভারতের শ্রীধরন শ্রীরামের সঙ্গেও কথাবার্তা চূড়ান্ত করে ফেলছে। তাকেই

টি-টোয়েণ্টি দলের দায়িত্ব দেওয়ার সিদ্ধান্ত একরকম চূড়ান্ত। তবে হাথুরু তা খুব ইতিবাচকভাবে নেননি। তার সঙ্গে একটি ফরম্যাটে আরও একজন দলের দায়িত্ব পালন করবেন, এটা নাকি মানতে

চান না এ লঙ্কান। এদিকে বিসিবিও শ্রীরামের সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করে ফেলেছে। বিপিএল শুরুর পর পরই চুক্তির মেয়াদ বাড়াতে ঢাকায় এসেছিলেন শ্রীরাম। কাজেই তাকে আর বাদ দেওয়ার

সুযোগ নেই। এখন যা করার হাথুরুর সম্মতি নিয়েই করতে হবে। হাথুরু ঢাকা আসলে তখন তার সাথে বসেই ওই বিষয়টা ফয়সালা হবে বলে জানা গেছে। সবকিছু ঠিক থাকলে ফেব্রুয়ারি মাসের

৩ তারিখ থেকে বিপিএলের যে পর্ব ঢাকায় শুরু হবে, ওই সময়ে হাথুরু রাজধানীতে থাকবেন। তখনই হয়তো সব চূড়ান্ত হবে। শেষ কথা, বাংলাদেশের ক্রিকেটে আবারো হাথুরুসিংহে উপাখ্যান শুরু হতে যাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *