“বেয়াদব” আফগানদের আচরণ শিখে ক্রিকেট খেলতে বললেন শোয়েব আখতার

আফগানিস্তানের ক্রিকেটার এবং দর্শকদের আচরণ শিখে তবেই ক্রিকেট খেলার পরামর্শ দিয়েছেন পাকিস্তানের কিংবদন্তি ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতার। গতকাল এশিয়া কাপের ম্যাচে ছিল চোখের পানি, মারামারি এবং টানটান উত্তেজনা। এশিয়া কাপে গতকাল আফগানিস্তানের মুখোমুখি হয়েছিল পাকিস্তান। যেখানে অবিশ্বাস্যভাবে শেষ উইকেটে নাসিম শাহর দুই ছক্কায় ম্যাচ জয়লাভ করে পাকিস্তান। ‌

কিন্তু এর আগে ১৯তম ওভারে এক অবাক কান্ড ঘটে যায়। শেষ দুই ওভারে পাকিস্তানের তখন দরকার ২১ রান, হাতে ৩ উইকেট। স্বীকৃত ব্যাটার বলতে কেবল আসিফ আলি। এর মধ্যে আফগান পেসার ফরিদ আহমেদের করা ১৯তম ওভারের দ্বিতীয় বলে আউট হয়ে গেলেন হারিস রউফ।

আসিফ আলিই শেষ ভরসা। ওভারের চতুর্থ বলে বিশাল এক ছক্কা হাঁকিয়ে পাকিস্তানকে জয়ের আশাও দেখালেন এই হার্ডহিটার। কিন্তু পরের বলটি সজোরে হুক করতে গিয়ে টপএজ হয়ে গেলেন আসিফ। শর্ট ফাইন লেগে সহজ ক্যাচ নেন করিম জানাত।

আসিফ ভালো করেই জানতেন, তিনি আউট হলে আর ভালো ব্যাটার নেই। তাই নিজের ওপরই হয়তো তার রাগ হচ্ছিল। ম্যাচের এমন উত্তেজনাকর মুহূর্তে আউট হয়ে মেজাজটা আর ধরে রাখতে পারলেন না আসিফ।

আফগানিস্তানেরও তখন শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থা। এমন মুহূর্তে উইকেট পেয়ে আসিফের সামনে এসে কিছু একটা বলেন ফরিদ। আসিফ মেজাজ হারান, ব্যাট উঁচিয়ে আফগান পেসারকে মারতে যান।

পরে আরেক আফগান ফিল্ডার এসে সরিয়ে নেন আসিফকে। সম্ভাব্য ‘মারামারি’ থেকে বাঁচিয়ে দেন তিনি। আসিফ রাগে গজরাতে গজরাতে মাঠ ছাড়েন। এখানেই শেষ নয় টনটন উত্তেজনায় ম্যাচ জেতার পর পাকিস্তানের দর্শকদের ওপর হামলা চালিয়েছে আফগান দর্শকরা।

সে সময় মাঠের চেয়ার ভেঙে পাকিস্তানি দর্শকদের পেটাতে দেখা গিয়েছে আফগানিস্তান দর্শকদের। আফগান ক্রিকেটারদের আচরণ এবং খেলা শেষে গ্যালারিতে তাদের সমর্থকদের ভাঙচুরের ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন শোয়েব আখতার।

এসব নিয়ে খেলা শেষে নিজের ইউটিউব চ্যানেলে কথা বলেন শোয়েব। প্রতিবেশী দেশটির সমালোচনা করে রীতিমতো একহাত নেন তিনি, “জাতি হিসেবে আমরা সব সময়ই আফগানিস্তানের কঠিন সময়ে পাশে দাঁড়িয়েছি। আসিফ আলী আউট হওয়ার পর এটা তারা কী করল? কে তাকে ধাক্কা দিল, এমনকি গালিও দিল”?

“তোমরা ক্রিকেট খেলো। নিজেদের আবেগ দেখাও। এ ধরনের ঔদ্ধত্য দেখিয়ো না। এ জন্যই স্রষ্টা তোমাদের শাস্তি দিচ্ছেন। আর এ কারণেই স্রষ্টা এক পাঠানের (নাসিম শাহ) ছক্কায় আরেক পাঠানকে হারিয়ে দিয়েছেন। তোমরা লজ্জিত হয়েছ এবং কাঁদতে কাঁদতে মাঠ ছেড়েছ।”

তো ভারতীয়দের সঙ্গে বেশ ভালোভাবে মিশি। আর তোমরা কী করছ? আমরা তোমাদের ভাই বলে মনে করি। প্রতিবেশী দেশ, তোমাদের আমরা ভালোবাসি, খেয়াল রাখি। আর সেই তোমরা এমন বেয়াদবি করছ? এটা মানা যায় না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *