ব্রেকিংঃ হঠাৎ মাহমুদউল্লাহর অধিনায়কত্ব কেড়ে নেওয়া নিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিলেন ডমিঙ্গো

টি-টোয়েন্টিতে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স তেমন প্রশংসনীয় নয়। বড় স্কোর দাঁড় করাতে পারছেন না, ডট বল খেলেন বেশি এবং যা টি-টোয়েন্টি মেজাজের ব্যাটিং নয়।ক্রিকেটের খুদে ফরম্যাটে নিজেকে প্রমাণ করতে না পারার

ফল পান সবশেষ জিম্বাবুয়ে সফরে। বিশ্রামে দেওয়া হয়েছে অজুহাতে তাকে সেই সফর থেকে বাদ দেওয়া হয়। অধিনায়ক করা হয় উইকেটকিপার ব্যাটার নুরুল হাসান সোহানকে।পরে অবশ্য সোহানের ইনজুরিতে দেশ থেকে উড়িয়ে নেওয়া হয়

মাহমুদউল্লাহকে। কিন্তু এবার দলে থাকলেও টি-টোয়েন্টির নেতৃত্ব হারিয়েছেন পঞ্চপাণ্ডবের অন্যতম তারকা। আসন্ন এশিয়া কাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দলকে নেতৃত্ব দেবেন সাকিব আল হাসান।এদিকে মাহমুদউল্লাহকে টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব

থেকে অব্যাহতি দেওয়ার বিষয়ে অবাক হয়েছেন কোচ রাসেল ডমিঙ্গো।তিনি বলেন, তার (মাহমুদউল্লাহ) কাছ থেকে অধিনায়কত্ব কেড়ে নিতে দেখে খুব অবাক হয়েছি।মাহমুদউল্লাহর টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্বকে কীভাবে মূল্যায়ন করবেন—

এক গণমাধ্যমের করা প্রশ্নে এ কথা বলেন রাসেল ডমিঙ্গো।এ প্রোটিয়া কোচ বলেন, ‘আমার দৃষ্টিতে মাহমুদউল্লাহ দারুণ একজন অধিনায়ক। কঠিন সময়ে দারুণ কাজ করেছে। তার ব্যাটিংয়ের অনেক সমালোচনা হয়। কিন্তু ওর টি-টোয়েন্টি

ব্যাটিংয়ে আমার যথেষ্ট আস্থা আছে। তার কাছ থেকে অধিনায়কত্ব কেড়ে নিতে দেখে খুব অবাক হয়েছি। ওর জন্য আমার খারাপ লাগছে। কারণ আমি জানি, ও আরেকটি বিশ্বকাপে নেতৃত্ব দিতে চেয়েছিল। যাই হোক, এটি বোর্ডের ব্যাপার।

বোর্ড যা ভালো মনে করে, তাই করেছে।’প্রসঙ্গত, জুয়াড়ির সঙ্গে কথোপকথনের বিষয় গোপন করার অপরাধে সাকিব আল হাসান নিষিদ্ধ হলে ২০১৯ সালে টি-টোয়েন্টির নেতৃত্ব পান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ভারতের বিপক্ষে দিল্লিতে জয় দিয়ে নেতৃত্বের

পথচলা শুরু হলেও পরের পথচলা সুখকর ছিল না। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ ৪৩টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে। তার মধ্যে জয় পেয়েছে ১৬টিতে, হেরেছে ২৬টিতে আর একটি ম্যাচে ফল হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *