ব্রেকিং নিউজঃ পাকিস্তানের ওয়ানডে বিশ্বকাপ বয়কট

আগামী বছর ভা’রতে অনুষ্ঠিত হবে ওয়ানডে বিশ্বকাপ। সেটিকে কেন্দ্র করেই দলগুলো ইতোমধ্যে নিজেদের প্রস্তুতি শুরু করে দিচ্ছে। তবে এর আগে এশিয়ার দেশগুলোর নিজেদের মধ্যে লড়াইয়ের

সুযোগও আছে। কেননা বিশ্বকাপের আ’গেই অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা এশিয়া কাপও। এই এশিয়া কাপ ওয়ানডে বিশ্বকাপের জন্য হতে পারে ভাল প্রস্তুতির মঞ্চ। ভারত-পাকিস্তান এই দুই দেশের বৈ’রিতা নতুন

কিছু নয়। রাজনীতির ময়দান ছাপিয়ে ক্রিকেট মাঠেও বি’রোধ দেখা যায় এই দুই দেশের মধ্যে। এসব কারণে কোন দ্বিপাক্ষিক সিরিজে এই দুই দেশ মুখোমুখি হয় না অনেক দিন। তবে এশিয়া কাপ কিংবা

বিশ্বকাপের মত আসরগুলোতে দুই দল একে অপরের মুখোমুখি হত। এবার বুঝি সেটুকুও বন্ধ হতে চলেছে। আগামী বছর ভারতে অনুষ্ঠিত হবে ওয়ানডে বিশ্বকাপ। সেটিকে কেন্দ্র করেই দল’গুলো

ইতোমধ্যে নিজেদের প্রস্তুতি শুরু করে দিচ্ছে। তবে এর আগে এশিয়ার দেশগুলোর নিজেদের মধ্যে লড়াইয়ের সুযোগও আছে। কেননা বিশ্বকাপের আগেই অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা এশিয়া কাপও। এই এশি’য়া

কাপ ওয়ানডে বিশ্বকাপের জন্য হতে পারে ভাল প্রস্তুতির মঞ্চ। তবে এই আসরগুলো নিয়েও এবার মুখোমুখি অবস্থানে ভারত ও পাকিস্তান। সবকিছু ঠিক থাকতে ২০২৩ সালে সেপ্টেম্বরে পাকিস্তানের

মাটিতে বসবে এশিয়া কাপের আসর। তবে পাকিস্তানে এশিয়া কাপ খেলতে যাওয়ার ব্যাপারে আপত্তি আছে ভারতের। এমনকি এশিয়া কাপ বয়কট করার সিদ্ধান্তও আসতে পারে। ভারতের এমন সিদ্ধান্তে

বেজায় চটেছেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) চেয়ারম্যান রমিজ রাজা। দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই পাকিস্তান ক্রিকেটকে নতুন মাত্রায় নিয়ে যাওয়ার প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছেন সাবেক এই ক্রিকেটার।

তিনি আসার পর থেকে দেশটির ক্রিকেটও নতুন করে ঘুরে দাঁড়িয়েছে। এ বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও ফাইনাল খেলেছে পাকিস্তান। ফলে ক্রিকেট দুনিয়ায় আবারও পাকিস্তানের দাপটটা টের

পাওয়া যাচ্ছে। ফলে আইসিসির কোন আসরে পাকিস্তান না থাকলে তা ক্রিকেটের জন্যই লজ্জার। আর সেই হুমকিই ক্রিকেট বিশ্বকে দিয়ে রাখলেন রমিজ রাজা। পাকিস্তানের একটি গনমাধ্যমকে তিনি

বলেন, ‘আগামী বছর ভারতে ওয়ানডে বিশ্বকাপে যদি পাকিস্তান না যায় তাহলে সেটি কে দেখবে? আমাদের অবস্থান অনড়। তারা যদি এশিয়া কাপ খেলতে পাকিস্তানে আসতে রাজী হয় তবে আমরাও

যাব। যদি তারা না আসে আমরাও যাব না, আমাদেরকে ছাড়াই বিশ্বকাপ হবে।’ ফলে বোঝাই যাচ্ছে ভারত এশিয়া কাপ খেলতে পাকিস্তান না গেলে হয়তো পাকিস্তানও ভারত যাবে না বিশ্বকাপ খেলতে।

এরকমটা হলে আসলে লোকসানের মুখে পড়বে ক্রিকেট দুনিয়াই। ওদিকে ভারত সর্বশেষ পাকিস্তান সফরে গিয়েছিল ২০০৮ সালে। এরপর মাঝে কোন দেশই নিরাপত্তার কারণে পাকিস্তান যায়নি।

তবে সেই অবস্থা থেকে আবার ফিরে এসেছে দেশটি। আবারও ক্রিকেট ফিরে এসেছে পাকিস্তানে। আবার দল হিসেবে ভাল করতে শুরু করেছে বাবর আজমরা। রমিজ রাজাও সেকথাই তুলে ধরেছেন,

‘আমাদের দল এখন পারফর্ম করছে। আমরা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলেছি, আমরা কঠোর পথে যাব।’ সবশেষে অনেকটা হুমকির সুরেই তিনি বলেন, ‘এশিয়া কাপ খেলতে ভারত পাকিস্তানে

আসবে না, এরকম কোন আলোচনা এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলে হয়নি। তবে সুযোগ যদি আসে (আলোচনার) আমাদের অবস্থান থাকবে অনড়। তোমরা যদি আস, আমরাও যাব। এটাই আমাদের কথা।’

সবমিলিয়ে দুই দেশের এমন মুখোমুখি অবস্থানে বিপাকে ক্রিকেট বিশ্ব। ভারতকে ছাড়া যেমন অসম্পূর্ণ থেকে যাবে এশিয়া কাপ। তেমনি পাকিস্তানকে ছাড়াও তো বিশ্বকাপ কল্পনাই করা যায় না।

ফলে দ্রুতই দুই দেশকে নিয়ে একটা সমাধানে আসা প্রয়োজন। না হলে এশিয়া কাপ কিংবা বিশ্বকাপ দুটোই নিজেদের রং হারাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *