ব্রেকিং নিউজঃ ২২ আগস্ট ডমিঙ্গোর ভাগ্য নির্ধারণ! টি-টোয়েন্টির পরিকল্পনায় নাম নেই ডমিঙ্গো

সাকিব তামিম মুশফিকের হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গোকে নিয়ে প্রশ্ন অনেক দিনের। এই কোচের অধিনে এখন পর্যন্ত একটা টি-২০ সিরিজ ভালকরতে পারিনি বাংলাদেশ। এর মধ্যে শোনা গেল

ডমিঙ্গোর জায়গায় টি-টোয়েন্টি দলের হেড কোচ হিসেবে নিয়োগ পেতে পারেন ভারতের শ্রীধরন শ্রীরাম। তবে শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশ আসছে শ্রীরাম, অবশ্য হেড কোচ হিসেবে নয়। বাংলাদেশ

টি-২০ দলে শ্রীরাম নিয়োগ পেয়েছেন টেকনিক্যাল কনসালট্যান্ট হিসেবে। তবু ডমিঙ্গোই টি-টোয়েন্টি দলের কোচ থাকছেন কিনা তা নিয়ে শঙ্কা। ২২ আগস্ট খোলাসা হতে পারে বিষয়টি। শোনা

যায়, আধুনিক মারকাটারি টি-টোয়েন্টিতে ডমিঙ্গোর কোচিং দর্শন একদমই পছন্দ নয় বোর্ডের একটা অংশের। আভাস পাওয়া যাচ্ছিল ডমিঙ্গোকে আপাতত ওয়ানডে ও টেস্ট দলের দায়িত্বে

রেখে টি-টোয়েন্টি দলের কোচ হিসেবে বেছে নেওয়া হবে নতুন কাউকে। শ্রীধরন শ্রীরামের নাম উচ্চারিত হচ্ছিল জোরেসোড়ে। কিন্তু শ্রীরামকে শেষ পর্যন্ত নিয়োগ দেওয়া হলো অন্য পদে।

টি-টোয়েন্টির হেড কোচের দায়িত্বে ব্যাটিং কোচ জেমি সিডন্সের নামও উচ্চারিত হচ্ছিল। কিন্তু সিডন্স নাকি জানিয়ে দিয়েছেন অপেক্ষাকৃত তরুণ ক্রিকেটারদের নিয়ে কাজ করতে চান

তিনি। জাতীয় দলের হেড কোচের দায়িত্ব নিতে চান না। এমন পরিস্থিতিতে ডমিঙ্গোই কি তবে টি-টোয়েন্টি দলের হেড কোচের দায়িত্বে থাকছেন? শোনা যাচ্ছে সেই সম্ভবনা খুব বেশি নয়। আগামী

২২ আগস্ট বৈঠকে বসবে বিসিবি। চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে সেখানেই। শুক্রবার (১৯ আগস্ট) বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘এটা আমরা এখনো ঠিক করিনি। ২২ তারিখ

সবার সঙ্গে বসা হবে। বসে আমরা সিদ্ধান্ত নেব। অনেক পরিবর্তনই আসবে। একটা-দুটি জিনিস নয়। আমরা রাসেল ডমিঙ্গোকে রেখেই পরিবর্তন করব নাকি না রেখে করব, এসব কিছু আমরা

২২ তারিখ সিদ্ধান্ত নেব। আমাদের সবার সঙ্গে বসব। তাদের কথা শুনব।’ ফরম্যাট অনুযায়ী কোচ আলাদা করার পরিকল্পনা খোলাসা করলেন বিসিবি সভাপতি, তাতে টি-টোয়েন্টির পরিকল্পনায়

ডমিঙ্গো নাম নেই। তিনি বলেন, ‘আমাদের এখন পর্যন্ত চিন্তাধারা হচ্ছে, ডমিঙ্গোর ওয়ানডে ও টেস্টে মনোযোগী হতে হবে। আমরা সবকিছু একটু আলাদা করতে চাচ্ছি। যে পরিমাণ খেলা, ডমিঙ্গোর

পক্ষে এত কিছুতে মনোযোগ দেওয়া সম্ভব নয়। তাঁর সঙ্গে আমাদের যে চুক্তি, অনেক সিরিজে সে যেতেই পারবে না। তাঁর ছুটির একটা নির্দিষ্ট সময় আছে তো। বুঝতে হবে। এটা এত সহজ নয়।

মানসিকতার একটা ব্যাপার আছে। টেস্ট ও ওয়ানডের সঙ্গে টি-টোয়েন্টির কোনো মিল নেই। এসব নিয়ে চিন্তাভাবনা করে আলাদা করার কথা ভাবছি।’ সংস্কারভেদে দীর্ঘ মেয়াদি কোচ নিয়োগের

কথাও ভেবে রেখেছে বিসিবি। নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘যদি পারি আমরা কোচিং স্টাফও আলাদা করে দেব। আমরা এশিয়া কাপে দেখব, বিশ্বকাপে দেখব। এরপর একটা সিদ্ধান্ত নেব। তারপর

শ্রীরামকে টি-টোয়েন্টিতে রেখে দেব নাকি অন্য কাউকে দেখব, এটা পারফরম্যান্সের ওপর নির্ভর করবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *