ভারতের বিরুদ্ধে মাঠে নামার আগে পিছিয়ে পাকিস্তানই, নিজেই জানিয়ে দিলেন,পাক তারকা ক্রিকেটার

এশিয়া কাপের শেষ চারে রবিবার ভারত-পাকিস্তান মুখোমুখি। গ্রুপ পর্বের খেলায় জিতেছে ভারত। সুপার ফোর-এ তার বদলা নেওয়ার সুযোগ পাকিস্তানের সামনে। কিন্তু সেই ম্যাচে নামার আগের দিন মহম্মদ রিজওয়ান জানিয়ে দিলেন, পিছিয়ে রয়েছেন তাঁরা। দলের উইকেটরক্ষকের মতে, শাহিন শাহ আফ্রিদি না থাকায় দল অনেকটা দুর্বল। এই দলের কোনও বোলারের পক্ষে শাহিনের অভাব পূরণ করা সম্ভব নয়।

হংকং ম্যাচের শেষে রিজওয়ান বলেন, ‘‘সত্যি কথা বলতে, আমাদের দলে এখন যে বোলাররা রয়েছে তারা কেউ শাহিনের অভাব পূরণ করতে পারবে না। গত বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতের বিরুদ্ধে ও কী করেছিল সেটা সবাই দেখেছে। শাহিনকে সবাই ভয় পায়। ও না থাকা আমাদের কাছে বড় ধাক্কা। শাহিন না থাকায় আমাদের বোলিং অনেক দুর্বল। ও না থাকায় ম্যাচ শুরু হওয়ার আগেই আমরা পিছিয়ে পড়ছি।’’

শাহিন গত দু’বছর পাকিস্তানের জার্সিতে কেমন বল করেছেন, তা মনে করিয়ে দিয়েছেন রিজওয়ান। পাকিস্তানের উইকেটরক্ষক বলেন, ‘‘গত এক-দু’বছরে শাহিন যা বল করেছে তাতে ওর ধারেকাছে কেউ নেই। আমরা এখনই আরও একটা শাহিন পাব না। কিন্তু দলের বাকি বোলারদের কাছে সুযোগ রয়েছে নজর কাড়ার। নাসিম শাহ ও শাহনওয়াজ দাহানি ভাল বল করছে। হ্যারিস রউফও অভিজ্ঞ। আশা করছি ওরা ভারতের বিরুদ্ধে ভাল বল করবে।’’

শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে ডান পায়ের হাঁটুতে চোট পান বাঁহাতি জোরে বোলার। তাঁর চোট পরীক্ষা করে অন্তত ছ’সপ্তাহ বিশ্রাম নেওয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসকেরা। তার পরেই পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) জানিয়ে দেয়, চোটের জন্য শাহিন খেলতে পারবেন না এশিয়া কাপে। খেলতে না পারলেও বাবর আজমদের সঙ্গে শাহিন রয়েছেন দুবাইয়ে।

সেখান থেকেই তিনি লন্ডন যাবেন চিকিৎসার জন্য। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে তাঁকে সম্পূর্ণ সুস্থ করে তুলতে চাইছেন পাকিস্তানের ক্রিকেট কর্তারা।পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘লন্ডনে শাহিনের পরবর্তী চিকিৎসা চলবে। পিসিবি-র মেডিক্যাল বোর্ডের সদস্যরা বিষয়টি তদারকি করবেন। লন্ডনে চিকিৎসক ইমতিয়াজ আহমেদ এবং জাফর ইকবালের তত্ত্বাবধানে থাকবে শাহিন।

২০১৬ সাল থেকে ইমতিয়াজ কুইন্স পার্ক রেঞ্জার্স ফুটবল ক্লাবের মেডিক্যাল বোর্ডের প্রধান। ২০১৫ সাল থেকে জাফর ক্রিস্টাল প্যালেস ফুটবল ক্লাবের মেডিক্যাল কমিটির প্রধান। চিকিৎসা পরামর্শদাতা হিসাবে দু’জনেই যুক্ত পিসিবি-র সঙ্গে। আশা করা হচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগেই সুস্থ হয়ে মাঠে ফিরতে পারবে শাহিন। প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে শাহিনের ফেরা নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে পিসিবি-র মেডিক্যাল বোর্ড।’’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *