মানসিক প্রতিবন্ধীর ফোন ভাঙলেন ম্যানইউ তারকা রোনালদো, পুলিশের হুঁশিয়ারি

সময়টা বেশ কিছু দিন ধরেই খারাপ চলছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর। তার দল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডেরও বৈকি! এভারটনের বিপক্ষে গেল মৌসুমে হেরেই বসেছিল দলটি। সেই ম্যাচ শেষে

এমন কিছু করেছিলেন রোনালদো, যার ফলে পুলিশের মুখোমুখিই হতে হয়েছে তাকে। শুনতে হয়েছে তাদের হুঁশিয়ারিও। এভারটনের মাঠ গুডিসন পার্কে সেই ম্যাচে ১-০ গোলে হেরেছিল ইউনাইটেড।

এরপর ড্রেসিং রুমে ফেরার পথে মানসিক প্রতিবন্ধী কিশোরের মোবাইল আছড়ে ফেলেন তিনি। তাও তার বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করে ওই কিশোরের পরিবার। সেই অভিযোগের

প্রেক্ষিতেই পর্তুগিজ তারকাকে সতর্ক করা হয়। সেদিন ম্যাচ শেষে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে দেখতে পেয়ে ছবি তুলতে মোবাইল বাড়িয়েছিল জ্যাকব। সে দিন ম্যাচ হারায় মেজাজ গরম ছিল তার।

যার ফলে তিনি রাগে ফোন টেনে নিয়ে মাটিতে আছড়ে ফেলে দিয়েছিলেন। পরে রোনালদো অবশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখেছিলেন, ‘রাগের মাথায় কাজটা করে ফেলেছি। সেজন্য ক্ষমা

চাইছি। যদি সম্ভব হয়, আমি সেই সমর্থককে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে খেলা দেখার জন্য আমন্ত্রণ জানাতে চাইব।’ তবে তাতেও কাজ হয়নি। তার পরিবার পুলিশের কাছে ঠিকই গিয়ে অভিযোগ জানায় রোনালদোর

নামে। তার বিরুদ্ধে মানহানি করা ও সম্পত্তির ক্ষতি করার অভিযোগ করা হয়। এরপর চলতি মাসের শুরুতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রোনালদোকে ডেকে পাঠায় পুলিশ। তখনই ৩৭ বছরের রোনালদোকে

সতর্ক করে পুলিশ। এই বিষয়টি এখানেই শেষ বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। আবার এমন ঘটনা ঘটালে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে রোনালদোর বিরুদ্ধে। রোনালদোর কাছে আরও সংযত এবং পরিণত আচরণ আশা করেন তদন্তকারীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *