মুশফিক-মাহমুদউল্লাহকে একি মন্তব্য করলেন,সাকিব

টি-টোয়েন্টিতে নতুন বাংলাদেশকে দেখবে ক্রিকেট ভক্তরা। এশিয়া কাপের আগে এটিই ছিল সবচেয়ে বড় আলোচনা। কিন্তু অনেক আলাপ-আলোচনা শেষেও সেই নতুন বোতলে পুরাতন মদ চালাতে থাকে ক্রিকেট বোর্ড।

যেখানে সবচেয়ে বড় দুই নাম মুশফিকুর রহিম এবং মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। টি-টোয়েন্টিতে অচল দুই ক্রিকেটারকে এশিয়া কাপেও বয়ে বেড়িয়েছে বাংলাদেশ। দুই ম্যাচ থেকে ৯ বলে ৫ রান করা মুশফিক তো শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মহাগুরুত্বপূর্ণ ক্যাচও ছেড়েছেন।

আর মাহমুদউল্লাহ সম্ভবত এখনও নিশ্চিত নয় টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটটা কীভাবে খেলতে হয়। অনুশীলনে ফুটেজে কেবল ছক্কা হাঁকানোর অনুশীলন করা মাহমুদউল্লাহ ৪৯ বল খেলে ছয় মেরেছেন কেবল একটি। ওয়ানিন্দু হাসারাঙাকে মারা সেই ছয়েও পিউর অথোরিটি রাখতে পারছেন, এমন কিছু লক্ষ্য করা যায়নি।

দুই ম্যাচ মিলিয়ে ৪৯ বলে ৫২ রান করেছেন মাহমুদউল্লাহ। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে পাঁচে নেমে এমন ব্যাটিং করলে সেটি হতাশা ছাড়া আর কিছু নয়। এশিয়া কাপ শেষে এই দুই ক্রিকেটারকে একপ্রকার সতর্কবার্তা দিয়ে রাখলেন অধিনায়ক সাকিব।

এশিয়া কাপে সংবাদ সম্মেলনে পেসারদের নিয়ে আলোচনা করার সময় সাকিব বলেছিলেন, ‘যারা ডেলিভার করতে পারবে তারা থাকবে, যারা ডেলিভার করতে পারবে না, তারা থাকবে না। এই হিসাবটা খুবই সিম্পল।’

এরপর মাহমুদউল্লাহ এবং মুশফিক এখনো কেন দলে এমন প্রশ্নের উত্তরে সাকিব এই দুই ক্রিকেটারকে একপ্রকার সতর্কবার্তা দিয়ে বলেন,‘আসলে আমরা তো ১১ জন খেলছি, মাঠের বাইরে আছে আরও ৪-৫ জন। এছাড়া আমাদের সঙ্গে রয়েছে কোচিং স্টাফ। আমরা তাই নির্দিষ্ট করে ২-৩ জন প্লেয়ারের জন্য কথাগুলো বলা হয় নাই। কথাগুলো বলা হয়েছে সামগ্রিক ক্ষেত্রে এবং এটা সবার জন্য প্রযোজ্য।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *