বুধবার , ২৬ জানুয়ারি ২০২২ | ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. আন্তজাতিক সংবাদ
  3. ক্রিকেট
  4. খেলাধুলা
  5. ফুটবল
  6. শিক্ষা
  7. স্বাস্থ্য এবং পরামর্শ

শহিদ আফ্রিদির রেকর্ড কাপিয়ে দিলেন বাংলার নাহিদুল!

প্রতিবেদক
Sanarbangla Publisher
জানুয়ারি ২৬, ২০২২ ৪:৩৬ পূর্বাহ্ণ

বিপিএলে ‘মিতব্যয়ী’ বোলিংয়ে শহীদ আফ্রিদির রেকর্ড ছুঁলেন নাহিদুল ইসলাম। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের অফ স্পিনার আজ ফরচুন বরিশালের বিপক্ষে ৪ ওভারে মাত্র ৫ রান দিয়ে নিয়েছেন ৩ উইকেট। ওভারপ্রতি ১.২৫ রান করে দিয়েছেন তিনি।

২০১৫ সালে বরিশাল বুলসের বিপক্ষে ৪ ওভারে ৫ রান দিয়েছিলেন আফ্রিদিও। সেবার সিলেট সুপার স্টারসের হয়ে খেলেছিলেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক। বরিশাল সে ম্যাচে গুটিয়ে গিয়েছিল মাত্র ৫৮ রানে। আফ্রিদি নিয়েছিলেন ২ উইকেট। ওই ম্যাচে আফ্রিদি এসেছিলেন ইনিংসে পঞ্চম বোলার হিসেবে। আজ নাহিদুলকে দিয়েই ইনিংস শুরু করিয়েছেন কুমিল্লা অধিনায়ক ইমরুল কায়েস। প্রথম ওভারেই আঘাত করেন নাহিদুল।

স্লগ করতে গিয়ে মিডউইকেটে ক্যাচ দেন সৈকত আলী। করিম জানাত অবশ্য প্রথম দফায় ক্যাচটা নিতে পারেননি, হাত ফসকে বের হয়ে গেলেও বল পড়ে করিমের পায়ের ওপর। সামনে ঝুঁকে ক্যাচটা নেন তিনি।

দ্বিতীয় ওভারে নাহিদুল ফেরান বরিশাল অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে। ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে এসে খেলতে চেয়েছিলেন সাকিব, টাইমিং করতে পারেননি ঠিকঠাক। মিড-অন থেকে পেছন ছুটে ভালো ক্যাচ নেন ইমরুল।

সে উইকেট নেওয়ার সময়ও কোনো রান দেননি নাহিদুল। এরপর অবশ্য তাঁকে আক্রমণ থেকে সরিয়ে নেন ইমরুল। অষ্টম ওভারে ফিরতি স্পেলে ফেরেন নাহিদুল, এবার দেন ১ রান। নবম ওভারে নিজের চতুর্থটি করতে এসে নাহিদুল পেয়ে যান আরেকটি ‘বড়’ উইকেট। ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে আসা ক্রিস গেইল নাগাল পাননি বলের, হন স্টাম্পিং। নিজের শেষ বলে নুরুলকে একটা সিঙ্গেল দেন নাহিদুল, না হলে টপকে যেতে পারতেন আফ্রিদিকেও।

৫৫ ম্যাচের ক্যারিয়ারে এটিই নাহিদুলের সেরা বোলিং ফিগার। এর আগের সেরা ছিল ১৫ রানে ৩ উইকেট। গত বছর ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ টি-টোয়েন্টিতে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের বিপক্ষে এ ফিগার ছিল প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে খেলা নাহিদুলের। কমপক্ষে ১২ বল করেছেন, বিপিএলে এমন বোলারদের মধ্যে অবশ্য ইকোনমি রেটে নাহিদুল ও আফ্রিদি যৌথভাবে তৃতীয়। ২০১৬ সালে রংপুর রাইডার্সের বাঁহাতি স্পিনার আরাফাত সানি ৩ উইকেট নিয়েছিলেন কোনো রান না দিয়েই,

বোলিং করেছিলেন ২.৪ ওভার। এ তালিকায় এরপর আছেন মোহাম্মদ নবী। সে বছরই চিটাগং ভাইকিংসের হয়ে ২ ওভার বোলিং করে ২ রান দিয়ে ১ উইকেট নিয়েছিলেন আফগান অফ স্পিনার, ঢাকা ডায়নামাইটসের বিপক্ষে। টি-টোয়েন্টিতে সব মিলিয়ে মিতব্যয়ী বোলিংয়ের রেকর্ডটি দুজনের। গত বছর ভারতের সৈয়দ মুশতাক আলী ট্রফিতে মনিপুরের বিপক্ষে ৪ ওভারে কোনো রান না দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছিলেন ভিদার্ভ অফ স্পিনার অক্ষয় কার্নেওয়ার।

গত বছরই একই বোলিং ফিগার ছিল কানাডার বাঁহাতি স্পিনার সাদ বিন জাফরের। পানামার বিপক্ষে এ রেকর্ড গড়েছিলেন তিনি।

সর্বশেষ - ক্রিকেট

আপনার জন্য নির্বাচিত

হঠাৎ একাদশে একাধিক পরিবর্তন, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্ট ম্যাচের জন্য বাংলাদেশের বিধ্বংসী একাদশ ঘোষণা

এবার একদিনে ক্রিকেট ইতিহাসকেই পাল্টে দিল আফিফ-মিরাজ

সাকিব আছে বলেই আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ! এবার সাকিব আছে : সুজন

তাসকিনকে আইপিএল খেলার অনুমতি দিলেও সাথে জুরে দিলেন একটি শর্ত

চিরবিদায় নেওয়ার আগে বাংলাদেশের খুদে বালককে নিয়ে যে অবিশ্বাস্য মন্তব্য করেছিলেন শেন

অবশেষে সব ধোঁয়াশা দূর করে আইপিএল খেলবেন কিনা চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিলেন তাসকিন

আইসিসির সিদ্ধান্তকে ছুঁড়ে ফেলে দিয়ে, এবার মুখোমুখি হতে যাচ্ছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তান

শরিফুলের বলে মাথায় আঘাত, করুন অবস্থা বিশ্বের

হঠাৎ করেই বিরাটকে নিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিলেন বাংলাদেশের কিংবদন্তিতুল্য ব্যাটার মুশফিক !

বিপিএলে ঝড় তুলে বাংলার মাটিকে নিয়ে একি বললেন সুনিল নারাইন !