শোবিজ অঙ্গনের বাইরে এতো নাটক বোধহয় শুধু বাংলাদেশ ক্রিকেটেই সম্ভব।

শোবিজ অঙ্গনের বাইরে এতো নাটক বোধহয় শুধু বাংলাদেশ ক্রিকেটেই সম্ভব। সাকিব আল হাসান রাতে যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে আসবেন, সকালে বোর্ড কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। এ ছিল

অনুমিত ভবিষ্যৎ। কিন্তু ‘আনপ্রেডিকটেবল’ বাংলাদেশ ক্রিকেটে কোনো কিছুই যে পরিকল্পনা মাফিক হয় না। সাকিবের সঙ্গে বোর্ড কর্তাদের এই বৈঠকের ইস্যু দুইটি। এক- বোর্ডকে না

জানিয়ে বেটউইনার নিউজ পোর্টাল নামক একটি কোম্পানির শুভেচ্ছা দূত হওয়া, যে কোম্পানিটি আবার জুয়াভিত্তিক অনলাইন প্রতিষ্ঠান বেটউইনারের একটি অংশ। দুই- টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের

অধিনায়কত্ব ইস্যু। সঙ্গে সাকিবের এই বৈঠকের পর আসন্ন এশিয়া কাপের দল ঘোষণা করবে বোর্ড।  তবে সেই বৈঠক নিয়ে শুরু হলো নাটকীয়তা। এক পরিচালককে বৈঠক আর দল ঘোষণার

সম্ভাব্য স্থান সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলে তার স্পষ্ট জবাব, দলে দেওয়া হবে মিরপুরে। তবে বৈঠকের খবর তার কাছে নেই। তবে কিছুটা আঁচ পেয়ে সংবাদমাধ্যম কর্মীরা ছুটলেন বাংলাদেশ

ক্রিকেট বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের গুলশানের বাসায়। সেখানে সকাল সাড়ে ১১টায় সাকিবের আসায় খবর ছড়িয়েছে। সেই থেকে অপেক্ষা। সেই অপেক্ষা পালা চললো

বিকেল ৩টা অবধি, খোঁজ নেই কারো। দুপুর ৩.১০টায় সাকিব এলেন, অনেকটা বেশভূষা বদলে, পুরোনা রঙচটা এক গাড়িতে চেপে। প্রায় সংবাদমাধ্যম কর্মীদের চোখ গলিয়েই তিনি উঠে গেলেন

লিফটে। বাইরে তখন ক্যামেরা হাতে দাঁড়িয়ে থাকা ফটোসাংবাদিকদের ছবি আর ফুটেস মিসের আক্ষেপ। যদিও সেই আক্ষেপ পরে সুদে-আসলে পুষিয়ে দিয়েছেন সাকিব।  সাকিবের পর একে একে

পাপনের বাসায় প্রবেশ বোর্ড পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন, জালাল ইউনুস। নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু আর হাবিবুল বাশার সুমনের। বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে প্রায় ২ ঘণ্টা ব্যাপী চললো

এই বৈঠক। এরপর ঠিক সাড়ে ৫টায় প্রস্থান সাকিবের। অনেকটা বিজয়ের বেশেই ‘আইভি লিগাসি’ ত্যাগ করলেন সাকিব। যাওয়ার আগে সাকিবের চোখেমুখে যেন উৎসবের ছাপ। গত কয়েকদিন

ধরে যে চাপ আর টানাপোড়ন ছিল, সেটা নামিয়েই যেন হালকা হয়েছেন এই বাঁহাতি অলরাউন্ডার। সঙ্গে বাড়তি পাওয়া টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের অধিনায়কত্বের দায়িত্ব। যা তাকে দেওয়া

হয়েছে আসন্ন অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপ পর্যন্ত।সাকিব পাপনের বাসা থেকে বের হতে যখন লিফটে উঠলেন, তখন কয়েকজন সংবাদ মাধ্যমকর্মীর চোখ দেওয়ালে ঝুলে থাকা মনিটরের দিকে। যেখানে

সিসিটিভির ফুটেজে স্পষ্ট, হাত দুলিয়ে রীতিমত নাচচ্ছেন সাকিব। এরপর তিনি যখন গাড়িতে বসবেন, তার আগে শুধু হাসিতেই সীমাবদ্ধ রাখলেন না নিজেকে, সংবাদমাধ্যমকর্মীদের দিকে তাকিয়ে

উড়ন্ত চুমু ছুঁড়ে দিলেন। সাকিবের এমন রূপ শেষ কবে দেখেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট? এই প্রাণবন্ত হওয়ার কারণ জানা গেল খানিক পরেই।বোর্ডেরক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যা ন জালাল

ইউনুস বললেন, ‘সাকিব আল হাসান এশিয়া কাপ, নিউজিল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ ও বিশ্বকাপের জন্য অধিনায়ক থাকছেন। বোর্ডের আগে থেকেই একটা সিদ্ধান্ত ছিল সাকিবকে নিয়ে। আজ

সে ব্যাপারেই আবার আলোচনা হয়েছে এবং সে অনুযায়ী সাকিবকেই বিশ্বকাপ পর্যন্ত নেতৃত্ব দেয়া হচ্ছে। পরবর্তীতে আমরা আবার বিশ্বকাপের পর নতুন নেতৃত্বের বিষয়টা বিবেচনা করব।’ কিন্তু

বোর্ডকে না জানিয়ে বেটউইনারের সঙ্গে যে চুক্তি, সে ব্যাপারে সাজার মুখোমুখি হতে হবে না সাকিবকে? জালালের ব্যাখ্যা, ‘এটা নিয়ে অনেক আলাপ হয়েছে। সাকিব তার ভুল বুঝতে পেরেছে

যে তার এমনটা করা উচিত হয়নি। আর সাকিব আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণণ ক্রিকেটার। যেহেতু আমরা আগে থেকেই সিদ্ধান্ত রেখেছিলাম যে সাকিবকে নেতৃত্ব দেয়া হবে তাই ওটাই করা

হয়েছে। যেহেতু সাকিব প্রেসিডেন্টের (পাপন) সামনে এবং আমাদের সামনে বলেছে যে ওটাকে অনলাইন নিউজ পোর্টটাল মনে করে ওটার সাথে চুক্তি করেছে। তাকে বুঝিয়ে বলার পর সে কিন্তু

সরে এসেছে।’ দু’দিন আগে চিঠি দিয়ে বোর্ডকে সাকিব জানিয়েছেন, বেটউইনারের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করেছেন তিনি। আজ কারণ ব্যাখ্যায় বলেছেন, না বুঝে প্ররোচিত হয়েছিলেন।  ‘সাকিব দেশের জন্য

খেলবে নাকি বেটিংয়ে থাকবে এটা তার সিদ্ধান্ত’ জালাল বললেন, ‘তার (সাকিব) কাছে মনে হয়েছে যে এটা প্ররোচনা। এসব নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এটা যেহেতু আমাদের অনুমতি ছাড়া চুক্তি করেছে

এ ব্যাপারে (শাস্তি বা কারণ দর্শানো) পরবর্তী বোর্ড সভায় আলোচনা করা হবে এখানে আমাদের যুক্তি তো আছে। আমরা তো বলেছি সে আমাদের সেরা ক্রিকেটার, সে দেশের বাইরের কেউ না। সে

যখন বলেছে যে ভুল করেছে আমরা তা মেনে নিয়েছি।’ সঙ্গে যোগ করনে জালাল, ‘পরবর্তীতে যেন এমন ভুল না করে সেটা তাকে বলা হয়েছে এবং সাকিব তা মেনেও নিয়েছে। সে আশ্বাস দিয়েছে আমাদের

বোর্ড প্রেসিডেন্টের সামনে তাই মেনে নিয়েছি। এমন কিছু হলে আসলে মেনে নেওয়া উচিত না। কিন্তু যেহেতু দলের চিন্তা করে এবং সে যেহেতু বলেছে এবার আমরা মেনে নিয়েছি। আশা করছি পরবর্তীতে এমন কিছু আর হবে না।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *