সেমির স্বপ্নটাই যেন বড় দুঃস্বপ্ন বাংলাদেশ দলের জন্য

প্রথমবারের মতো নারীদের অনূর্ধ্ব-১৯ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আয়োজন করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা (আইসিসি)। যেখানে উড়াল দেওয়ার আগে বাংলাদেশের অনূর্ধ্ব-১৯

নারীদের কাছে খুব বেশি চাওয়ার ছিল না দেশের ক্রিকেট ভক্তদের। কিন্তু বিশ্বকাপের মঞ্চে খেলতে নেমে টাইগ্রেস ক্রিকেট ভক্তরা আশার পালে জোর হাওয়া পান ক্রিকেটারদের অসাধারণ

পারফরম্যান্সের সৌজন্যে। বিশ্বকাপের মূল মঞ্চে মাঠে নামার আগে প্রস্তুতিমূলক দুই ম্যাচে বাংলাদেশের নারী অনূর্ধ্ব-১৯ দল মুখোমুখি হয়েছিল স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা এবং ভারতের

বিপক্ষে। দুই ম্যাচে জয় তুলে নেয় টাইগ্রেসরা। তবে আসল চমক বাঘিনীরা দেয় বিশ্বকাপের মূল মঞ্চে অস্ট্রেলিয়া অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে। যেখানে অজিদের বিপক্ষে আধিপত্য

দেখিয়ে ৭ উইকেটের বড় জয় তুলে নেয় বাঘিনীরা। পরের ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেও সহজ জয় তুলে নেয় দিশা বিশ্বাস, আফিয়া প্রত্যাশারা। গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে যুক্তরাষ্ট্রকে উড়িয়ে

দিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই সুপার সিক্সে জায়গা করে নেয় বাঘিনীরা। তখন থেকেই বাংলাদেশের অনূর্ধ্ব-১৯ দল নিয়ে প্রত্যাশার পারদ চড়ে উঁচুতে উঠে যায়। শিরোপা স্বপ্নও দেখতে চায় টাইগ্রেস

ক্রিকেট ভক্তরা। সুপার সিক্সের দুই ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ ছিল যথাক্রমে দক্ষিণ আফ্রিকা এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত। দুই ম্যাচেই টাইগ্রেসদের জয় পাওয়াটা অবধারিত ধরে নিয়েছিল

অনেকে। জিতলে অবশ্য সহজেই সেমিফাইনালে জায়গা করে নিতো মারুফা আক্তার, সুমাইয়া আক্তার, দিশারা। কিন্তু সুপার সিক্সে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচে এসে দিশা হারিয়ে ফেলে

টাইগ্রেসরা। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৫ উইকেটে হাড়ো দেখে বাংলাদেশ। তাও ৭ বল আগেই। যা বাংলাদেশের নারীদের জন্য দুঃখ বয়ে আনে। গ্রুপ পর্ব থেকে ৪ পয়েন্ট নিয়ে সুপার সিক্সে আসা

টাইগ্রেসরা নেট রান রেটে পিছিয়ে পড়ে সে ম্যাচে। বাংলাদেশ ৩ ম্যাচ খেলে গ্রুপ পর্বের ৪ পয়েন্টসহ নেট রান রেট দাঁড়ায় ০.২৬৮। অন্যদিকে সুপার সিক্সে একই গ্রুপে খেলা ভারত, অস্ট্রেলিয়া,

দক্ষিণ আফ্রিকা প্রত্যেক দলই সর্বোচ্চ ৪ ম্যাচ করে খেলে সমান ৬ পয়েন্ট অর্জন করে ফেলে। দলগুলোর নেট রান রেট দাঁড়ায় যথাক্রমে ভারতের ২.৮৪৪, অস্ট্রেলিয়ার ২.২১০ এবং

দক্ষিণ আফ্রিকার ০.৩৭৪। ফলে এই গ্রুপ থেকে সেমিফাইনালে জিততে হলে নিজেদের শেষ ম্যাচে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে কেবল হারালেই হবে না নেট রান রেটে অস্ট্রেলিয়াকে পেছনে

ফেলার চ্যালেঞ্জ অতিক্রম করতে হবে বাঘিনীদের। এই চ্যালেঞ্জ অতিক্রম করতে আজ (২৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় দক্ষিণ আফ্রিকার পচেফস্ট্রুমে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে বাংলাদেশ

সময় ৫টা ৪৫ মিনিটে মাঠে নামবে বাঘিনীরা। কিন্তু এই চ্যালেঞ্জটাই হয়ত শেষ পর্যন্ত বড় দুঃস্বপ্ন হয়ে ধরা পড়বে দিশা, প্রত্যাশা, মারুফাদের সামনে। কারণ, সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে

নেট রান রেট ঠিক রাখতে হলে বাংলাদেশকে অবশ্যই অবশ্যই আগে ব্যাটিং করতে হবে। কেবল তাই নয় জয় তুলে নিতে হবে কম করে হলেও ১৬০ রানের বেশি। অর্থাৎ, বাংলাদেশ আগে

ব্যাটিং করে ২০০ রান করলে সংযুক্ত আরব আমিরাতের মেয়েদের অলআউট করতে হবে ৪০ রানের মধ্যে। তাহলেই কেবল অজিদের পেছনে ফেলে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের মঞ্চে মাঠে

নেমে সেমিফাইনাল খেলে ফেলতে পারবে বাঘিনীরা। যদি কোনো কারণে পরে ব্যাটিং করে টাইগ্রেসরা, তবে নেট রান রেটে অজিদের পেছনে ফেলাটা কেবল দীর্ঘ নিঃশ্বাস হয়ে ধরা পড়বে

দিশাদের সামনে। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশের অনূর্ধ্ব-১৯ নারীদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম অংশগ্রহণ স্বপ্নের সীমানা পেরোয় নাকি স্বপ্নটাই দুঃস্বপ্ন হয়ে ধরা পড়ে সেটিই এখন দেখার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *