৪০ বছর বয়সী ইংলিশ ক্রিকেটার অ্যান্ডারসনের অনন্য এক বিশ্বরেকর্ড

ধারাবাহিক পারফর্ম করে নিজেকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন জেমস অ্যান্ডারসন। টেস্টের আদি ফরম্যাটে পেস বোলার হিসেবে রেকর্ড সর্বোচ্চ ৬৫৯ উইকেট শিকারের কীর্তি গড়েন এই ইংলিশ তারকা।বৃহস্পতিবার ইংল্যান্ডের ওল্ড ট্রাফোর্ডে

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে শুরু হওয়া টেস্টে খেলতে নেমেই নতুন একটি মাইলফলক স্পর্শ করলেন অ্যান্ডারসন। দেশের মাঠে টেস্ট ম্যাচ খেলার সেঞ্চুরি করে ফেললেন ৪০ বছর বয়সী এই তারকা পেসার।এর আগে ভারতের মাঠে সর্বোচ্চ ৯৪টি

টেস্ট ম্যাচ খেলেছিলেন কিংবদন্তি ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকার। ৯২টি টেস্ট ম্যাচ খেলেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক সফল অধিনায়ক রিকি পন্টিং।তবে একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে ঘরের মাঠে একশটি টেস্ট ম্যাচ খেলার বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন

অ্যান্ডারসন। সবচেয়ে বেশি ২০০টি টেস্ট ম্যাচ খেলার বিশ্ব নজির গড়েন ভারতের সাবেক অধিনায়ক শচীন টেন্ডুলকার।ইতোমধ্যে ১৭৪টি টেস্ট ম্যাচ খেলে দ্বিতীয় পজিশনে আছেন জেমস অ্যান্ডারসন। ১৬৮টি করে টেস্ট ম্যাচ খেলে বিদায়

নিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার দুই কিংবদন্তি ক্রিকেটার রিকি পন্টিং ও স্টিভ ওয়াহ।এর আগে ১৯১২ সালে ৩৯ বছর ৫২ দিন বয়সে সিডনি বার্নস সবচেয়ে বুড়ো বোলার হিসেবে উইকেট শিকার করেছিলেন। তার সেই ১১০ বছরের রেকর্ড ভাঙেন অ্যান্ডারসন।

লর্ডসে প্রথম ইনিংসে দক্ষিণ আফ্রিকার তারকা পেসার কাগিসো রাবাদা, আনরিচ নর্টজে ও মার্কু জেনসেনের গতির মুখে পড়ে ১৬৫ রানেই অলআউট স্বাগতিক ইংল্যান্ড। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৭৩ রান করেন ওলি পোপ।

আফ্রিকার হয়ে রাবাদা তিন আর নর্টজে ৩ উইকেট শিকার করেন। ২ উইকেট নেন জেনসেন। জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে সেরেল এরউই (৭৩ ), মার্কু জেনসেন (৪৮), ডিন এলগার (৪৭) ও কেশভ মহারাজের (৪১) দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ১৬১ রানের লিড নিয়ে ৩২৬ রানে অলআউট হয় দক্ষিণ আফ্রিকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *